প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইরানের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করবেনা তুরস্ক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নূর মাজিদ : কোন বিদেশী শক্তির হুকুমে ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক ছিন্ন করবেনা তুরস্ক। ইরানের তেল আমদানি বন্ধে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র দেশগুলোর প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বানের প্রেক্ষাপটে শুক্রবার তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগলু তুর্কি চ্যানেল এনটিভি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন কথা বলেন।

এর আগে মে মাসে ট্রাম্প প্রশাসন ইরানের সঙ্গে সম্পাদিত পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিকভাবে সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয়। এরপরেই, যুক্তরাষ্ট্র নিরাপত্তা পরিষদের চলতি সপ্তাহের এক অধিবেশনে নিজেদের মিত্র দেশ সহ অন্যান্য দেশের প্রতি ইরান থেকে জ্বালানী তেল আমদানি বন্ধ করবার আহ্বান জানায়। এই আহ্বানে সারা দিয়ে ইতোমধ্যেই ভারত ইরান থেকে জ্বালানী তেল আমদানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে এই বিষয়ে তুরস্কের অবস্থান পরিষ্কার করে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ যদি (এই অঞ্চলে) ‘শান্তি ও স্থিতিশীলতা’ নিয়ে আসার লক্ষ্যেই গৃহীত হয়, তবে আমরা তা সমর্থন করব। কিন্তু, তাই বলে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সকল সিদ্ধান্ত মানতে বাধ্য নই। এমনকি, কোন মিত্র রাষ্ট্র নিজেদের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সকল সিদ্ধান্ত মেনে নেবেনা।

এসময় তিনি আরো বলেন, ‘ইরান একটি উত্তম প্রতিবেশী রাষ্ট্র এবং তাদের সঙ্গে আমাদের জোরালো অর্থনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। কোন দেশের হুকুমে আমরা ইরানের সঙ্গে আমাদের বিদ্যমান বাণিজ্যিক সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্থ করবনা।”

তুরস্ক ন্যাটো জোটের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য দেশ এবং তাদের জ্বালানী তেলের চাহিদার জন্য তারা সম্পূর্ণভাবেই আমদানি নির্ভর। চলতি বছরের প্রথম চার মাসেই তুরস্ক ইরানের কাছে থেকে ৩.০৭ মিলিয়ন টন অপরিশোধিত জ্বালানী তেল আমদানি করেছে। যা তুরস্কের মোট জ্বালানী চাহিদার ৫৫ শতাংশ। রয়টার্স

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ