প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

অভিবাসন আইন কঠোর করবে দ.কোরিয়া

সান্দ্রা নন্দিনী: ইয়েমেন থেকে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীর সংখ্যা হঠাৎ করে আশংকাজনকহারে বেড়ে যাওয়ায় দেশটির অভিবাসন আইন কঠোর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। শুক্রবার দেশটির আইন মন্ত্রণালয় খবরটি নিশ্চিত করে।

মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, দক্ষিণ কোরিয়ার জেজু প্রদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপে গত জানুয়ারি থেকে মে মাসের মধ্যে ইয়েমেন থেকে ৫৫২ অভিবাসনপ্রত্যাশী এসে পৌঁছেছে। এরমধ্যে ৪৩০জন শরণার্থী হিসেবে থাকতে চেয়ে আবেদন করেছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৪ সাল থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণ করছে দক্ষিণ কোরিয়া। এর প্রেক্ষিতে ২০১৩ সালে শরণার্থী আইন প্রণয়ন করে দেশটি। দক্ষিণ কোরিয়াই এশিয়ার প্রথম দেশ যারা ধর্ম, বর্ণ, জাতীয়তা ও রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে নিজদেশ থেকে বিতাড়িত হয়ে দেশটিতে আশ্রয়প্রার্থনা করলে, তাদের সুরক্ষা দিতে আইন পাস করেছে।

তবে, ১৯৯৪সাল থেকে এপর্যন্ত মাত্র ৮শ’ জনকে শরণার্থী হিসেবে গ্রহণ করেছে দেশটি। সম্প্রতি, তিনবছর ধরে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত ইয়েমেন থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আসা বেড়ে যাওয়ায় দেশটিতে অপরাধ ও অন্যান্য সামাজিক সমস্যা বৃদ্ধির আশংকা করছে দক্ষিণ কোরিয়া।

এর প্রেক্ষিতে, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রায় সাড়ে ৫লাখ নাগরিক একটি অনলাইন পিটিশনে স্বাক্ষর করে দেশটির প্রেসিডেন্ট কার্যালয় ব্লু হাউজের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। তাদের দাবি, সরকার যেন কোনভাবেই নো-ভিসা এন্ট্রি এবং অভিবাসন আবেদন গ্রহণ না করে।

দেশটির আইন মন্ত্রণালয় জানায়, কোনরকম জটিলতারোধে শরণার্থী আইন পুনঃপর্যালোচনা করবে সরকার। এজন্য ইতোমধ্যেই জেজুতে পৌঁছানো আশ্রয়প্রার্থীদের ঠেকাতে অভিবাসনপ্রত্যাশী দেশের তালিকা থেকে ইয়েমেনের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। রয়টার্স

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত