প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দীর্ঘ আলোচনার পর ইইউ সম্মেলনে অভিবাসন বিষয়ে ঐকমত্য

সান্দ্রা নন্দিনী: বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত ইইউ সম্মেলনে অভিবাসন বিষয়ে চুক্তিতে পৌঁছেছেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন সংঘের নেতারা। প্রায় ১০ঘণ্টার দীর্ঘ আলোচনার পর শুক্রবার শেষপর্যন্ত ঐকমত্যে পৌঁছান তারা।

এর আগে, সম্মেলনের শুরুতে আফ্রিকার দেশগুলো থেকে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীদের চাপে ন্যুব্জ ইতালি হুঁশিয়ারি দেয়, যদি এই ইস্যুতে ইইউ নেতাদের কাছ থেকে কোনও সুনির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত না পাওয়া যায়, তবে সংঘটির সামগ্রিক এজেন্ডায় অনাস্থা জানাবে দেশটি।

নতুন অভিবাসীচুক্তি অনুযায়ী, ইইউ-ভুক্তদেশগুলোতে ‘স্বেচ্ছাসেবার’ ভিত্তিতে নতুন অভিবাসনকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। এই কেন্দ্রগুলোতে কারা আসল শরণার্থী এবং কারা অবৈধ অভিবাসনপ্রত্যাশী সেবিষয়টি নিরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করা হবে। এর ভিত্তিতেই মূলত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, কারা থাকবে আর কাদের পাঠানো হবে।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কোনতে বলেন, ইইউ সম্মেলনের পর ইউরোপের দায়িত্ব অনেক বেড়ে গিয়েছে। আজ ইতালি আর একা নয়।
অন্যদিকে, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল বলেন, এখনও ইইউকে অনেক কাজ করতে হবে। মতভেদ দূর করতে অনেক কিছু করার বাকি এখনও।

উল্লেখ্য, অভিবাসন ইস্যুতে বিভক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়ন। কেন্দ্রীয় দেশগুলো অভিবাসীদের নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। আফ্রিকা থেকে প্রবেশমুখ হওয়াতে গ্রিস ও ইতালিতে প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার শরণার্থী প্রবেশ করেছে। তারা ইউরোপের অন্যান্য দেশেও অভিবাসীদের আশ্রয় দেওয়ার আহ্বান জানালেও মাঝামাঝি থাকা দেশগুলো মানছে না।এই সংকট কাটাতেই বারবার আলোচনায় বসছে ইইউ।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, এই বৈঠকে ইউরোপের ঐক্য ফিরে এলো। ২৮টি দেশের নেতারা একমত হয়েছেন যে তাদের সীমান্ত আরও জোরদার করতে হবে। তুরস্ক ও উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোতে আর্থিক সহায়তাও বাড়াতে হবে। বিবিসি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত