প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুইস ব্যাংকে এতো টাকা জমা হলো কিভাবে?

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ : টানা পাঁচ বছর বৃদ্ধির পর সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশি নাগরিকদের আমানত কমেছে। ২০১৭ সাল পর্যন্ত সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমার পরিমাণ ৪৮ কোটি ১৩ লাখ সুইস ফ্রাঁ, বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৪ হাজার ৫৩ কোটি টাকা। ২০১৭ সালে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের অর্থের পরিমাণ ছিল ৬৬ কোটি ১৯ লাখ সুইস ফ্রাঁ বা ৫ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংক (এসএনবি) প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের তুলনায় ২০১৭ সালে এসে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের আমানত কমেছে দেড় হাজার কোটি টাকা। কিন্তু কথা হচ্ছে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের এতো টাকা জমা হলো কিভাবে?
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন সাংবাদিক, গবেষক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আফসান চৌধুরী।
তিনি আরো বলেন, এই বিষয়ে আসলে মানুষের খুব বেশি আগ্রহ নেই। কেননা কিছু কিছু মানুষ তো মনে করে যে, সুইস ব্যাংকে কারা টাকা রাখছেন সরকার তাদের বের করার বিষয়ে আগ্রহী হবে না। আবার কেউ কেউ তো এমনও মনে করে যে, সুইস ব্যাংকে টাকা রাখার পরিমাণ দিন দিন কমে আসুক সেই বিষয়েও সরকার কোনো প্রকার উদ্যোগ নিবে না।
আফসান চৌধুরী আরো বলেন, সরকারি চাকরিতে প্রচলিত ব্যবস্থায় ৫৬ শতাংশ আসনে কোটায় নিয়োগ দেয়া হয়ে থাকে। এর মধ্যে ৩০ শতাংশ রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা কোটা। ১০ শতাংশ রয়েছে নারীদের জন্য। আরো রয়েছে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা। বেশ কয়েক বছর ধরেই এই কোটা ব্যবস্থা সংস্কারে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। তবে এপ্রিল মাসে তাদের আন্দোলন তীব্রতর হলে সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে কোনা বাতিলের ঘোষণা আসে। আসলে সরকারকে আরো বেশি কর্মক্ষেত্র তৈরি করতে হবে। তাছাড়া এই আন্দোলন তিব্র থেকে তিব্রতর হবে। কেননা মানুষের চাকরি নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত