প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ান বেলজিয়াম

কেএম হোসাইন : দ্বিতীয়ার্ধে খেলার শুরু কিছুক্ষণের মধ্যে ইয়ানুসাইর গোলে ১-০  ইংল্যান্ডকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ান হল বেলজিয়াম। ৫১ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে বাঁ পায়ের দারুণ ক্রস থেকে ইংলিশ গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ডকে পরাস্থ করে গোলটি করেন তিনি।

নিয়মরক্ষার  ম্যাচে দু’দলের খেল ছিলো অনেকটাই শরীর বাঁচানোর। আক্রমণের ধার কম। টান টান উত্তেজনা নেই। যে কারণে ম্যাচের প্রথমার্ধে কেউ কারও জালে বল জড়াতে পারেনি। গোলশূন্য ড্রতে শেষ হয়েছে প্রথমার্ধের খেলা।

ম্যাচের ৬ষ্ঠ মিনিটেই দারুণ এক আক্রমণ করে বেলজিয়ামের ইউরি তিয়েলমান্স। ন্যাসার চাদলির কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের দারুণ এক শট নেন তিয়েলমান্স। সেটিই অসাধারণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন থিবাত কুর্তোস।

১০ম মিনিটে নিশ্চিত গোল বেঁচে যায় ইংল্যান্ড। বক্সের মধ্যে মিকি বাতসুয়াইর জটলার মধ্য থেক ডান পায়ের আলতো শট নেন। গোলরক্ষক পিকফোর্ডকে ফাঁকিয়ে দিয়ে বলটি গড়িয়ে গড়িয়ে যাচ্ছিল ইংল্যান্ডের বক্সের মধ্যে। শেষ মুহূর্তে ঝাঁপিয়ে পড়ে বলটি ক্লিয়ার করেন গ্যারি কাহিল।

১২তম মিনিটে যেন প্রথম গোলের সুযোগ তৈরি করে ইংল্যান্ড। মার্কাস রাশফোর্ড ডান পায়ের শট নিলেও বক্সের মধ্যে সেটি ঠেকিয়ে দেন বেলজিয়ামের ডিফেন্ডাররা। ১৪ মিনিটে জ্যামি ভার্ডি ডান পায়ের অসাধারণ একটি হেড নিয়েছিলেন। ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আরনল্ডের ক্রস থেকে আসা বলটিতে হেড করলেও সেটি চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে।

২৭ মিনিটে দারুণ একটি বল নিয়ে ইংল্যান্ডের পোস্ট লক্ষ্যে গিয়েছিলেন মিকি বাতসুয়াই। কিন্তু তার ডান পায়ের শটটি ঠেকিয়ে দেন ইংলিশ ডিফেন্ডাররা। পরের মিনিটেই মারুয়ানে ফেল্লাইনির ডান পায়ের শট ঠেকিয়ে দেন ইংলিশ ডিফেন্ডাররা। ৩৪ মিনিটে রুবেন লফটাস চেকের দারুণ এক হেড মিস হয়ে যায়। বল চলে যায় বাইরে। পরের মিনিটেই দারুণ একটি চেষ্টা ছিল আদনান জানুজাইর। কিন্তু সেটিও সফলতার মুখ দেখেনি।

৩৭ মিনিটে থোর্গান হ্যাজার্ড ডান পায়ের শট নিলে সেটি চলে যায় বক্সের বাইরে দিয়ে। তিন মিনিট পর, খেলার ৪০ মিনিটে সেই থোর্গান হ্যাজার্ডই গোল লক্ষ্যে ডান পায়ের দারুণ এক শর্ট চলে যায় বক্সের বাইরে। ৪৩ মিনিটে আদনান জানুজাইর বাম পায়ের শট মিস হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত প্রথমার্ধের খেলা শেষ হলো গোলশূন্য ড্র দিয়ে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত