প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের নির্লজ্জ চেহারা দেখেছে জনগণ

আবুল খায়ের ভুঁইয়া : শেখ হাসিনার অধীনে যখনই নির্বাচন কমিশন টিম গঠন করা হয়, তখনই শেখ হাসিনা বলেছিলো, এই কমিটি ফাস্ট কমিটি হয়েছে। এই কমিটির জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থেকে শুরু করে সমাজের প্রতিষ্ঠিত অনেক লোকের কাছ থেকেই এর মতামত নিয়েছে। সবার মতামতকে উপেক্ষা করে গত নির্বাচনে যাকে পটুয়াখালির নির্বাচন কমিশনের আহবায়ক বানিয়েছে, তাকে যোগ্য মনে করেই বানিয়েছে। তার অধিনে আমরা যতগুলো নির্বাচন দেখেছি, তার সবগুলোতেই অনিয়ম হয়েছে।

আমাদের মাঠ পর্যায়ে গেলেই বুঝি যে, জনগণ কাদের চাচ্ছে? এখন মূল বিষয়টি হচ্ছে গণতন্ত্রের উপর জনগণের নূন্যতম আস্থা নেই। ভোটাররা ভোট দিতে পারেনি, তারা কান্না করেছিলো, এমন দৃশ্যও আমরা দেখেছি। আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী ওবায়দুল কাদের নির্লজ্জভাবে  বলেছিলেন, গাজীপুরের নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। তাদের এ অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি ছাড়া আর কেউই প্রতিবাদ করেনি। ভোট গ্রহণের আগেই আওয়ামী লীগ নির্লজ্জভাবে ব্যালট বাক্সে সিল মেরে কেন্দ্রে রেখে দিয়েছে। যা নির্বাচনের নামে প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই না। বিএনপির ভোটারদের লাইন থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। এ কাজটি করেছে পুলিশ নিজেই।

আমাদের এজেন্টদেরকে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছে। এসমস্ত কিছুর পরও আমরা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেছি। তাদের যে গণতন্ত্রের চেহারা আছে, তা জনগণের সামনে উন্মচিত করতে। ইতোমধ্যে তাদের নির্লজ্জ চেহারা জনগণ দেখেছে। আমরা অংশগ্রহণ না করলে তাদের চেহারা উন্মোচিত হতো না। সামনের নির্বাচনের ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নিবো, নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো কি করবো না। সামনে যে নির্বাচন আছে, তা হাসিনা বা বর্তমান ইসির অধিনে হলে নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার কোন নিশ্চয়তা নেই আর জাতীয় নির্বাচনতো প্রশ্নই আসে না।

পরিচিতি : সাবেক এমপি, বিএনপি /মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত