প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

সমর্থনের ক্ষেত্রে হরেকরকম অনুভূতি!

প্রকৌশলী নওশাদুল হক : সমর্থন প্রদান কিংবা সমর্থন আদায় মানব আচরণের স্বাভাবিক প্রবণতা। সকল ক্ষেত্রে না হলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সমর্থন আদায়কারী কোনরূপ বিচার বিশ্লেষণ ব্যতিরেকেই সমর্থন পেতে মরিয়া। প্রয়োজনে কিংবা অপ্রয়োজনেও সমর্থন আদায়ে ব্যস্ত মানবজাতি। দু’তিন বছরের শিশুর সমর্থন আদায়ে বাবা মায়ের প্রশ্ন-তুমি কি বাবার ছেলে, না’কি মায়ের ছেলে? প্রশ্নটি অপ্রয়োজনীয় হলেও অহেতুক নয় নিশ্চয়ই! এর মধ্যে জড়িয়ে আছে সন্তানের নিকট বাবা মায়ের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের বিষয়টি।

স্বামী-স্ত্রী একত্রে খাওয়ার টেবিলে খেতে খেতে স্বামীর প্রতি স্ত্রীর প্রশ্ন- আমার রান্নাটি কেমন হয়েছে বলোতো? এক্ষেত্রে সমর্থন আদায়কারীনির আত্মতৃপ্তি ছাড়া আর কিছুই পাওয়ার নেই। খাবার টেবিলে রক্ষিত মাছের মাথাকে ইঙ্গিত করে বড়ভাইর প্রতি ছোট ভাইয়ের প্রশ্ন- ভাইয়া এটা তুমি খাবে, না’কি আমি খাবো? এক্ষেত্রে সমর্থন আদায়কারী একজন স্বার্থপর ছাড়া আর কি! অর্থাৎ স্বার্থপরতা, আত্মতৃপ্তি এবং জনপ্রিয়তাই সমর্থন আদায়ের মূল লক্ষ্য।

সমর্থন আদায়কারী সমর্থন আদায়ের জন্য যেমনিভাবে অনেক পন্থা অবলম্বন করে, তেমনিভাবে সমর্থন প্রদানকারীকেও সমর্থন প্রদানের ক্ষেত্রে অনেক বিষয়কেই বিবেচনায় আনতে হয়।

এই মুহুর্তে বিশ্বজুড়ে চলছে বিশ্বকাপ ফুটবলের তাপদাহ। এই তাপে উত্তেজিত নয় এমন লোকের সংখ্যা খুব একটা বেশি নয়। জাতি ও জাতীয়তার প্রশ্নে বত্রিশটি দেশের জনগণের দল সমর্থন যতখানি সহজ, অবশিষ্ট দেশগুলোর জনগণের জন্য ততটুকু সহজ নয় নিশ্চয়ই! কারও কারও সমর্থন দেখা যায় আঞ্চলিকতার ভিত্তিতে। ধর্মের ভিত্তিতেও সমর্থন করে অনেকেই। কেউ কেউ আবার সমর্থন করে পারিবারিক বা বংশীয় ধারায়। এগুলোর মতো ব্যাপকহারে না হউক ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও সমর্থন প্রদানের ক্ষেত্রে লাভ-লোকসান, শক্তি ও ক্ষমতা, গ্রহণযোগ্যতা, ভবিষ্যত, অতীতের অবস্থান, খ্যাতি ও জৌলুস, মিথ্যার আশ্রয়, বন্ধুত্ব ও মানবতা, রাজনীতি ও আদর্শ, গোষ্ঠী বা হেরিডিটি, স্বার্থ ও সন্তুষ্টি, অধিকার ও প্রাপ্যতা, ন্যায় বিচার, বৈষম্যহীনতা ও স্থিতিশীলতা বিশেষভাবে উল্লেখ করার মতো। তবে সবচেয়ে বেশি সমর্থন যে যোগ্যতার মাপকাঠিতেই থাকে এ ব্যাপারে নিশ্চয়ই সবাই একমত।

যার কাছে যে দল বা ব্যক্তি অধিক যোগ্য এবং যাদের উপযুক্ততা বেশি তাকেই বেশিরভাগ মানুষের সমর্থন দেওয়ার প্রবণতা দুনিয়াতে এখনও পর্যন্ত লক্ষণীয়। শুধুমাত্র খেলা নয়, যেকোন বিষয়েই সমর্থন প্রদানে যোগ্যতা এবং উপযুক্ততাকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। আর এরূপ সমর্থনে নির্বাচিত ব্যক্তি বা দল মানব কল্যাণে ও মানব উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে নিশ্চয়ই!

লেখক: সভাপতি, ঢাবি. সমাজকল্যাণ এ্যালামনাই ফোরাম/সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত