প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির পদত্যাগ

ডেস্ক রিপোর্ট : মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বয়স্ক বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে পাঠানো পদত্যাগপত্রে তিনি আগামী ৩১ জুলাই থেকে নিজ পদ থেকে অব্যাহতি নেবেন বলে জানিয়েছেন। অ্যান্থনি সমলিঙ্গ বিয়ে বা গর্ভপাতের অধিকার রক্ষায় আদালতের সিদ্ধান্তে গুরুত্বপূর্ণ ভোট দিয়েছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান লিখেছে, বুধবার ৮১ বছর বয়স্ক এই বিচারপতির পদত্যাগের খবর প্রকাশ হওয়ার পর মার্কিন নাগরিক সমাজ ধাক্কা খেয়েছে।

গার্ডিয়ান জানিয়েছে, কেনেডির স্থলে আরও নির্ভরযোগ্য রক্ষণশীল বিচারপতি নিয়োগ দিতে পারেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ডেমোক্র্যাটদের শঙ্কা এতে সর্বোচ্চ মার্কিন আদালতে রক্ষণশীলরা আরও শক্তিশালী হবে।

সর্বোচ্চ মার্কিন আদালত সুপ্রিম কোর্ট একজন প্রধান বিচারপতি ও আটজন বিচারপতি নিয়ে গঠিত হয়। প্রেসিডেন্টের মনোনীত বিচারপতিদের নিয়োগ দেয় সিনেট। একবার নিয়োগ দেওয়ার পর পদত্যাগ, অবসর বা ইমপিচমেন্ট ছাড়া তারা আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করতে পারেন। তৎকালীন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যানের বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডিকে ১৯৮৮ সালে নিয়োগ পান। দায়িত্ব পালনকালে ১৯৯৬ সালে কেনেডি সুপ্রিম কোর্টে সমলিঙ্গীয়দের অধিকার রক্ষার পক্ষে প্রথমবার আদালতের সিদ্ধান্ত দেন। ২০১৫ সালে সমলিঙ্গীয়দের বিয়ের অধিকার রক্ষার পক্ষে নিজের মতামত দেন।

প্রেসিডেন্টকে লেখা পদত্যাগপত্রে বিচারপতি কেনেডি দায়িত্ব পালনে সহায়তা করায় ট্রাম্পের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বুধবার তাকে পদত্যাগপত্র দিয়েছেন বিচারপতি কেনেডি। পরে সেখানে পর্তুগিজ প্রেসিডেন্ট মার্সেলো রেবেলোর সঙ্গে বৈঠক করেন ট্রাম্প। ওই বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের কেনেডির পদত্যাগের খবর জানান।

তিনি বলেন, আধাঘণ্টা আগে তিনি এই পদত্যাগের খবর শুনেছেন। নির্বাচনী প্রচারণার সময় করা আদালতের সম্ভাব্য ২৫ প্রার্থীর মধ্য থেকে অ্যান্থনির উত্তরসুরী বেছে নেবেন বলেও জানান ট্রাম্প। সূত্র : বাংলাট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ