প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

‘যা হওয়ার তা হয়ে গেছে, নতুনভাবে শুরু করতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক :  সম্প্রতি বাপ্পা মজুমদার ও চাঁদনীর বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। বাপ্পা মজুমদার আবারও বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন, কিন্তু চাঁদনী বিয়ের পিঁড়িতে না বসলেও বিচ্ছেদের পর নতুন উদ্যমে কাজে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

চাঁদনী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ফটোশুটের নতুন কিছু ছবি আপলোড করেছেন। সেই ছবির নিচে কমেন্টে অভিনয় ও নৃত্যশিল্পীদের অনেকে বদলে যাওয়া চাঁদনীকে স্বাগত জানিয়েছেন।

কেমন কাটছে চাঁদনীর বর্তমান সময় বা নতুন কী পরিকল্পনা করছেন তা জানতে চাওয়া হলে চাঁদনী বলেন, ‘পাঁচ বছর কাজ থেকে দূরে ছিলাম। এই দীর্ঘ বিরতির কারণে কাজ কমে এসেছে। আর কিছুই না। অনেকে দেখি বলেন, আমাকে নাকি খুঁজে পাওয়া যায় না! এটা পুরোপুরি মিথ্যা।’

সহকর্মীদের কারো কারো মতে জীবন ও ক্যারিয়ার নিয়ে আপনি নাকি হতাশ- এমন প্রশ্নে চাঁদনী বলেন, ‘হতাশা নয়। এ বছর এপ্রিলে আমার আব্বু মারা যান। হুট করেই আমার সংসার উলটপালট হয়ে গেল। এসব নিয়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলাম। হতাশা ভর করেছিল। পরে ভাবলাম, যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। আমাকে নতুনভাবে শুরু করতে হবে।’

নতুন ফটোশুটের বিশেষ কারণ কী জানতে চাইলে চাঁদনী বলেন, ‘তা তো আছেই। সবাই আমার নতুন ফটোশুটের ছবির খুব প্রশংসা করেছেন। মৌ আপু তো জড়িয়ে ধরেই আদর করে দিয়েছেন। আমার পরিচিতদের সবাই বলেছে, এভাবেই থাকবি, এভাবেই তোকে ভালো লাগছে। ইতিবাচক প্রশংসা সব সময় সবার কাছ থেকে পেয়েছি। আমার আবারও মনে হয়েছে, আমি খুব লাকি।’

চাঁদনী আরও বলেন, ‘বাপ্পা ও তানিয়াকে নিয়ে মাথাব্যথা নেই। আমি নিজেকে নিয়ে, আমার কাজ নিয়ে ভাবতে চাই। তবে আমার যত আফসোস, আমার যত কষ্ট—সবকিছু আমাকে ঘিরেই থাকুক। আমার পরিবারের কষ্ট আমার কষ্ট। আমার বাবা নেই, আমার মা বিধবা, আমি এখন এতিম—এর চেয়ে বড় কষ্ট ও সত্য আর কিছু নেই। আমার ব্যক্তিগত বিষয়গুলো ব্যক্তিগতই থাকুক। আমি যখন বাপ্পার স্ত্রী ছিলাম, তখন আমাদের সম্পর্কগুলো পার্সোনাল রেখেছি। কখনোই উন্মোচন করিনি। করতে চাইও না। অন্যরা যা করছে, এটা নিয়েও মাথা ঘামাতে চাই না।’

সূত্র: প্রথম আলো, প্রিয়.কম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত