প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘হলের অবস্থা ভালো না, তবুও দর্শক সিনেমা দেখছেন’

ইমতিয়াজ মেহেদী হাসান : জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খান বলেছেন, দেশের মফস্বল বা জেলা শহরের হলগুলোর অবস্থা খুব বেশি ভালো না। অনেক হলে ফ্যান/এসি নেই, পরিবেশও প্রতিকূলে। তবুও মানুষ আগ্রহ নিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্র দেখছে। বিষয়টি সত্যিই ভালো লাগার, আশাজাগানিয়াও বটে।

সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, এভাবেই আমাদের পাশে আপনারা থাকবেন, ভালোবাসা দেবেন। আপনাদের ভালোবাসাই আমাদেরকে, আমাদের ইন্ডাস্ট্রিকে সামনে এগিয়ে নেবে।

পবিত্র ঈদুল ফিতরে এই জনপ্রিয় চিত্রনায়কের ‘সুপার হিরো’, ‘পাংকু জামাই’ ও ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া ও নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ সিনেমা তিনটি মুক্তি পেয়েছে। তবে ঈদ বা উৎসবে একাধিক ছবি মুক্তির কথা না জানিয়ে শাকিব বলেন, ঈদে আমার একের অধিক সিনেমা মুক্তি পাক তা কখনই চাইনা। বরং চাই ঈদে আমার একটি মাত্র সিনেমা মুক্তি পাক। যেটা হবে ভালো সিনেমা, মানুষ দেখে পছন্দ করবে। হল ভরে যাবে দর্শকে।

আমাদের দেশে সিনেমার রিলিজ ডেট নিয়ে নানা জটিলতা তৈরি হয়। ফলে অসম্ভব হয়ে পড়ে নির্ধারিত তারিখে সিনেমা মুক্তি। এই বিষয়ে ঢালিউড সুপারস্টার বলেন, এটাও একটা বড় গ্যাপ। আমরা রিলিজ ডেট ফিক্সড করে ছবি করি না। যেটা কলকাতায় করা হয়। সেখানে প্রযোজকরা চুক্তির সময় যেই ডেটের কথা বলেন, সেই তারিখেই সিনেমা রিলিজ দেয়। কোনো কারণে সেটা না হলে পরবর্তীতে নায়কের সঙ্গে আলাপ করেই নতুন তারিখ ঠিক করে। কিন্তু আমাদের এখানে এটা হয় না। সিনেমার কাজ হচ্ছে, কিন্তু রিলিজের নির্ধারিত তারিখ ঠিক থাকে না। এক্ষেত্রে আমার ভূমিকা থাকবে, রিলিজ ডেট ফাইনাল করেই ছবি করা। অথবা আলোচনার মাধ্যমে রিলিজের তারিখ পরিবর্তন করা।

দেশীয় চলচ্চিত্র প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে আছে উল্লেখ করে জনপ্রিয় এই চিত্রনায়ক বলেন, আমরা প্রচার-প্রচারণায় অনেক পিছিয়ে আছি। পাশ্ববর্তী দেশ ভারতেই দেখুন না সিনেমা মুক্তির আগে তারা চ্যানেলগুলোতে সিনেমার টিজার/গান প্রচার করছে। এতে করে সিনেমাটি দেখার জন্য মানুষের আগ্রহ তৈরি হচ্ছে। কিন্তু সেদিক থেকে আমাদের দেশ অনেক পিছিয়ে। এদিকটায় মনোযোগী হওয়া জরুরি। পাশাপাশি সম্পূর্ণ বিনোদনমূলক চ্যানেল দরকার, যেখানে সার্বক্ষণিক দেশীয় ইন্ডাস্ট্রির কাজগুলো প্রচারিত হবে। এতে দর্শকের মনোযোগ বাড়বে। সমৃদ্ধ হবে চলচ্চিত্র শিল্প।

শাকিব বলেন, বর্তমান সরকার দেশীয় চলচ্চিত্রের উন্নয়নে নিরলস কাজ করছে। আশারাখি দ্রুতই এ শিল্পের দুরবস্থা কাটবে। এজন্য মাননীয় তথ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। কারণ তিনি আন্তরিক না হলে যতটুকু উন্নতি হয়েছে, সেটাও হতো না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত