প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রশিকার কাজী ফারুকের ২ বছরের জেল ও জরিমানা

আসাদুজ্জামান সম্রাট : চেক জালিয়াতির মামলায় প্রশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহীকে পৃথক দুটি মামলায় ২ বছরের জেল ও চেকের সমপরিমাণ অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহীর যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক শারমিন আখতার নেগোশিয়েবল ইন্সট্রুমেন্ট এ্যাক্টের ১৩৮ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে আসামি প্রশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ড. কাজী ফারুক আহমেদ ও প্রধান নির্বাহী কাজী খাজে আলমকে মহানগর দায়রা মামলা নং ৩৮৫/২০১৮ এবং ৩৮৭/১৮ মামলায় ১ বছর ১ বছর করে মোট ২ বছর জেলও একই সাথে চেকে উল্লেখিত ৩ কোটি ১০ লাখ ৫৩ হাজার ২১৮ টাকা এবং অপর চেকে উল্লেখিত ৪ কোটি ৩৬ লাখ ৬৪ হাজার ৭৭ টাকা অর্থদ- প্রদান করেন। উভয় আসামি পলাতক রয়েছে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এপিপি বিশ্বজিৎ বিশ্বাস এবং বাদি পক্ষের আইনজীবী নাজমুল ইসলাম জানান, আসামিদ্বয় রাকাব প্রধান কার্যালয় রাজশাহীর ঋণ কেসের বিপরীতে ২৩/২/২০১৬ ইং তারিখে তাদের নিজ নামীয় ওয়ান ব্যাংক লিঃ-এর দুটি চেক প্রদান করেন। আসামীদের দেয়া উক্ত চেক দুটি নগদায়নের জন্য বাদি ব্যবস্থাপক রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক স্থানীয় মূখ্য কার্যালয়, থানা শাহমুখদুম ২৪/২/২০১৬ তারিখ ওয়ান ব্যাংক লিঃ এ জমা দিলে অপর্যাপ্ত তহবিল মর্মে ব্যাংক চেক দুটি ডিজঅনার করে। এর প্রেক্ষিতে বাদি ২/৩/২০১৬ তারিখ আসামিদের লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করে। পরবর্তীতে ৫/৫/২০১৬ ইং রাজশাহীর সিএমএম “ক” অঞ্চল আদালতে বাদি অ্যাড. আব্দুস সামাদ মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় বাদি ব্যাংকের পক্ষে মাহফুজুল হক প্রিন্সিপ্যাল অফিসার, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক স্থানীয় মূখ্য কার্যালয় গত ২৭/৫/২০১৮ তারিখ আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেন। সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে গতকাল মঙ্গলবার আদালত এই রায় প্রদান করেন। সূত্র: দৈনিক সোনালী সংবাদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত