প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

চাঁদা না পেয়ে শহীদ মিনার ভেঙে গুড়িয়ে দিলো যুবলীগ নেতা

ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরায় চাঁদা না পেয়ে স্কুল মাঠের নবনির্মিত শহীদ মিনার ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। ওই যুবলীগ নেতা সাতক্ষীরা সদরের বাঁশদহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম রিপন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, হাওয়ালখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে কোন শহীদ মিনার না থাকায় স্থানীয় হাওয়ালখালী তরুণ সংঘের পক্ষ থেকে বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ মিনার নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। এ সময় বাঁশদহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম রিপন সহ কয়েকজন তরুণ সংঘের সভাপতি আলাউদ্দিনের কাছে ২৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে ওই শহীদ মিনার নির্মাণ করতে দেবে না বলে হুমকি প্রদান করেন। কিন্তু চাঁদার টাকা না দিয়ে স্কুলের মাঠে আলাউদ্দীন শহীদ মিনার নির্মাণ করেন। এর পর গত ১১ ফেব্রয়ারি রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা নবনির্মিত শহীদ মিনারটি ভাঙচুর করে। পরদিন এ ঘটনায় অজ্ঞতনামা ১০/১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন আলাউদ্দিন।

তরুণ সংঘের সভাপতি আলাউদ্দিন জানান, ভাষা শহীদদের স্মৃতি রক্ষার্থে ও তাদের স্মরণের জন্য শহীদ মিনারটি অত্যন্ত প্রয়োজন ছিল। আমি ও স্থানীয় তরুণরা বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ মিনার নির্মাণ করেছিলাম যেটা একটা ভাল উদ্যোগ ছিল। কিন্তু চাঁদা না দেয়ায় রিপনসহ স্থানীয় নেশাগ্রস্থ কিছু যুবক রাতের আঁধারে সেই শহীদ মিনারটি ভাঙচুর করে।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতাকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাতক্ষীরা সদর থানার এস আই প্রদীপ রায় বলেন, চাঁদাবাজি ও শহীদ মিনার ভাঙচুরের অভিযোগে আমরা যুবলীগ নেতা খোরশেদ আলম রিপনকে তাৎক্ষণিকভাবে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছি। এখন অভিযোগটির সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সূত্র: যমুনা টিভি

/সজিব খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত