প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোনো ষড়যন্ত্র আন্দোলনকে থামাতে পারবে না

নূরুল হক নুর : আমরা যৌক্তিক একটি দাবি নিয়ে আন্দোলন করলেও ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত ভয়-ভীতি দেখানোর জন্য পুলিশ আন্দোলন কারীদের উপর টিয়ারসেল এবং রাবার বুলেট ছুড়েছে। এমনকি কিছু আন্দোলন বিরোধীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসায় ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ করে আন্দোলনকারীদেরকে ফাঁসাতে চেয়েছিল। এসব করেছে আন্দোলনকে দমন করতে। কিন্তু তাদের সেই ষড়যন্ত্র সফল হয়নি। বরং ৯ এপ্রিল সারা দেশের শিক্ষার্থীরা রাজপথে নেমে আসলে সরকারের পক্ষ থেকে আন্দোলনকারীদের সাথে আলোচনা করার জন্য সচিবালয়ে ডাকা হয়।

ছাত্র আন্দোলনের দাবানল আবার শুরু হলে ১১  এপ্রিল সংসদে কোটা বাতিলের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু ছাত্ররা আন্দোলন থামালেও আড়াই মাসেও কোন প্রজ্ঞাপন দেওয়া হয়নি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত আছে। আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের আহবান জানাই, আন্দোলনের ডাক আসলে ভয়-ভীতি এবং হুমকিকে উপেক্ষা করে সবাই একসাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আবার রাজপথে নামবো, তাহলে ২ দিনের মধ্যই প্রজ্ঞাপন জারি হবে।

পরিচিতি : যুগ্ম-আহবায়ক, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ/ মতামত গ্রহণ : রাশিদুল ইসলাম মাহিন/ সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ