প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

রাশিয়া বিশ্বকাপ
যৌন হয়রানির শিকার নারী সাংবাদিকরা

বাঁধন  : রাশিয়ায় বিশ্বকাপ ফুটবল উন্মাদনার মধ্যেই অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা সমালোচনার জন্ম দিচ্ছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে সেখানে দুই জন নারী সাংবাদিককে ‘অন এয়ারে’ থাকা অবস্থায় যৌন হয়রানির শিকার হতে হয়েছে।

বিশ্বকাপের খবর সংগ্রহ করতে সারা বিশ্ব থেকে হাজার হাজার সাংবাদিক এখন রাশিয়ায়, যাদের অনেকেই নারী।

রোববার জাপান বনাম সেনেগালের ম্যাচ চলাকালে ‘অন এয়ারে’ থাকা অবস্থায় ব্রাজিলের নারী ক্রীড়া প্রতিবেদক জুলিয়া গুইমারাজকে এক দর্শক চুমু খাওয়ার চেষ্টা করেন।

আকস্মিক এ ঘটনায় কিছুটা হতবিহ্বল জুলিয়া মাথা সরিয়ে নিয়ে চুমু এড়াতে সক্ষম হন।

এরপরই তিনি ওই ব্যক্তির দিকে ঘুরে চিৎকার করে বলে উঠেন, “এমনটা করবে না! আর কখনও এমন করবে না। আমি কখনও তোমাকে এমনটা করতে দেব না, কখনও না, ঠিকাছে? এটা ভদ্রতা নয়, এটা ঠিক না।

“কখনও কোনো নারীর সঙ্গে এমনটা করবে না, ঠিকাছে? সম্মান দাও।”

ক্যামেরার আড়ালে চলে যাওয়া ওই ব্যক্তিকে পরে তার আচরণের জন্য ক্ষমা চাইতে দেখা যায়।

এর আগে গত সপ্তাহে রাশিয়া-সৌদি আরব ম্যাচ চলাকালে ডয়চে ভেলের কলাম্বিয়ান প্রতিবেদক জুলিয়েথ গঞ্জালেজ থেরান সরাসরি খবর দেওয়ার সময় এক ব্যক্তি তাকে জড়িয়ে ধরে তার স্তনে হাত দেয় এবং মুখে চুমু খায়।

এ ঘটনার পরও জুলিয়েথ না থেমে খবর দেওয়া চালিয়ে যান।

পরে অনলাইনে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, “এ ধরনের আচরণ আমাদের প্রাপ্য নয়। (একজন পুরুষ সাংবাদিকের মত) আমরা সমভাবে মর্যাদপূর্ণ এবং পেশাদার।”

দুই ঘন্টা প্রস্তুতি পর সরাসরি সংবাদ দিতে তিনি ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন জানিয়ে জুলিয়েথ বলেন, “আমি লাইভে আছি এবং ওই ব্যক্তি এই সুযোগটাই নিয়েছে। কিছুক্ষণ পর আমি ওই ব্যক্তিকে সেখানে খুঁজে বের করার চেষ্টা করি। কিন্তু পাইনি, সে চলে গেছে।”

ডয়চে ভেলে তাদের অনলাইন পাতায় ওই ভিডিও প্রকাশ করে এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছে, এটা ‘হামলা’ এবং ‘ভয়ঙ্কর নিপীড়ন’।

টিভি গ্লোবো এবং স্পর্টসটিভির সাংবাদিক জুলিয়া টুইটারে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “আমাকে ব্রাজিলে কখনো এ ধরনের পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়নি। কিন্তু রাশিয়ায় টুর্নামেন্ট চলাকালে দুই বার তাকে এ পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়েছে।

ওই সময় তিনি ‘অসহায় ও অরক্ষিত’ বোধ করছিলেন জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এ ঘটনা ভয়ঙ্কর ‘সতর্কবার্তা’।

“ওই সময় আমি জবাব দিতে পেরেছিলাম। কিন্তু কিছু লোকজন কেন মনে করে এটা করা ঠিক আছে এবং বাকি লোক তাদের এই মনস্তত্ত্ব বুঝতে পারে না। এটা দুঃখজনক।”

মস্কোতে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচের (রাশিয়া বনাম মিশর) সময়ও তিনি নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন বলে জানান এই নারী সাংবাদিক।

সূত্র : বিডিনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত