প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেসিদের জন্য অনেক পেরেশানির ম্যাচ

স্পোর্টস ডেস্ক : কঠিন পরীক্ষার ম্যাচে রাতে নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচের আগেই চলে আসছে অনেক হিসাব-নিকাশ। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনা জিতলেই হচ্ছে না। কামনা করতে হবে আইসল্যান্ডের হার। আর আইসল্যান্ড জিতলে গোল ব্যবধানের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে। সেই হিসেবে নাইজেরিয়াকে বড় ব্যবধানের হারানোর পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নামতে হবে মেসিদের।

এক ম্যাচে অনেক কিছু মাথায় রাখতে হচ্ছে আর্জেন্টিনা দলের। সেদিক থেকে লিওনেল মেসিদের জন্য এটা অনেক পেরেশানির বা ঝামেলার ম্যাচ। কারণ প্রতিপক্ষ ছেড়ে কথা বলার পাত্র নয়। শেষ ম্যাচ জিতে তারা বিশ্বকাপ স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে। এ ছাড়া আর্জেন্টিনার শেষ দুই ম্যাচের পারফরম্যান্সও এমন না যে, সেখান থেকে আত্মবিশ্বাস মিলবে। চাপের বোঝা মাথায় নিয়েই আজকের ম্যাচটি খেলতে হবে তাদের।

আমি আর্জেন্টিনার জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। এমন অবস্থায় যেকোনো দলই তাদের সর্বস্ব উজাড় করে খেলে। আর আর্জেন্টিনার মতো দল তো কখনোই চাইবে না এভাবে খালি হাতে বাড়ি ফিরতে। নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারলে আর্জেন্টিনাই ম্যাচ জিতবে। গত দুই ম্যাচে তারা নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারেনি।
নাইজেরিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের শেষ ম্যাচটি থেকে আত্মবিশ্বাস নিতে পারে আর্জেন্টিনা। ওটা স্রেফ একটা ম্যাচ হলেও ওই ম্যাচ থেকে অনেক কিছু নেওয়ার আছে। ওই ম্যাচে মেসি যেভাবে দলকে একা টেনেছেন, সেটা সহজ কিছু ছিল না। আমি নিশ্চিত, আজও মেসির কাছে একই প্রত্যাশা থাকবে সব আর্জেন্টাইন সমর্থকের। নিষ্প্রভ থাকা মেসিও চাইবে শেষ চেষ্টাটা করে দেখতে। পাশাপাশি অন্যরা যদি মেসির সঙ্গে তাল মিলিয়ে খেলতে পারে, তাহলে ফল আর্জেন্টিনার পক্ষেই থাকবে।

এটাও মনে রাখতে হবে যে, নাইজেরিয়ার লক্ষ্যও কিন্তু অভিন্ন। তিন পয়েন্ট পাওয়া নাইজেরিয়াও জয় পেতে মরিয়া থাকবে। আর্জেন্টিনাকে হারাতে পারলে তারাই উঠবে শেষ ষোলোয়। জেতার জন্য সম্ভাব্য সবকিছুই করবে তারা। আর জয়ের ব্যাপারটি মাথায় থাকলে আক্রমণাত্মক ফুটবলই খেলবে তারা। সেটা হলে আর্জেন্টিনার জন্য কিছুটা সুবিধা হতে পারে। কিন্তু সুযোগটাকে কাজে লাগাতে হবে। আগের দুই ম্যাচের মতো ভুল করলে চলবে না।
আরেক ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হচ্ছে আইসল্যান্ড। এই ম্যাচটিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ড্র করা আইসল্যান্ড ক্রোয়েশিয়ার বাধা টপকে শেষ ষোলোর টিকেট কাটতে প্রস্তুত। কিন্তু এই ম্যাচটির ভাগ্য নির্ভর করছে ক্রোয়েশিয়ার দল সাজানোর ওপর। নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় তারা নাকি তাদের সেরা একাদশ খেলাবে না। সেটা হলে আইসল্যান্ডের জন্য এটা বাড়তি পাওয়া হবে। কিন্তু ক্রোয়েশিয়া যদি তাদের পুরো শক্তির দল খেলায়, তাহলে আইসল্যান্ডের খুবই কঠিন হবে জয় পাওয়া।

গত রাতের ম্যাচে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে তুলনামূলকভাবে অনুজ্জ্বল মনে হয়েছে আমার কাছে। সেভাবে আক্রমণ করতে দেখা যায়নি তাকে। গোলের সম্ভাবনাও তৈরি করতে পারেননি। উল্টো পেনাল্টি মিস করেছেন। যদিও আমি অবাক হইনি। কারণ এটা খেলারই অংশ।

মেসিও প্রথম ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেছে। তো এটা নিয়ে কথা বলার তেমন কিছু নেই। ইরান দারুণ ফুটবল খেলেছে। বিশেষ করে তাদের রক্ষণভাগ পার হওয়া খুবই কঠিন কাজ ছিল স্পেন ও পর্তুগালের জন্য। আক্রমণেও খারাপ নয় তারা। একজন ফিনিশার থাকলে এই ইরান দলও অনেক দূর এগোতে পারত বলে আমার ধারণা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত