প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আসছে সম্প্রচার আইন
বিডিনিউজের লিংক বন্ধের তদন্ত হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

সারোয়ার জাহান : সম্প্রতি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের লিংক বন্ধের ক্ষেত্রে বিটিআরসি সরকারের নির্দেশ পাওয়ার দাবি করলেও তা অস্বীকার করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বিষয়টি তদন্ত করছেন তিনি। সোমবার বিবিসি বাংলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে একথা বলেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে তথ্যমন্ত্রী ইনু বলেন, সরকার গণমাধ্যমের এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন যেন কোনোভাবে গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ না করে, তাও দেখা হচ্ছে।

তখন তথ্যমন্ত্রীকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এবং ডেইলি স্টার ওয়েবসাইটের লিংক বন্ধের সাম্প্রতিক ঘটনার বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়।

গত ১৮ জুন বিকালে আকস্মিকভাবে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের লিংক বন্ধ করতে মোবাইল ফোন ও আইআইজি অপরারেটরগুলোকে নির্দেশ দেয় বিটিআরসি।

তখন বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেছিলেন, তারা ‘সরকারের উপর মহলের নির্দেশে’ এই নির্দেশনা দেন।

তবে কোনো কারণ দেখাননি তিনি। পরে রাতে আবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ওয়েবসাইটের লিংক খুলে দেওয়া হয়।

বিবিসির প্রশ্নে ইনু বলেন, ‘এটা বিটিআরসি কেন করেছে, সেজন্য আমরা বিটিআরসির কাছে কৈফিয়ত চাচ্ছি। আমার তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে কোনো নির্দেশনা যায়নি।’

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা গণমাধ্যমের বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার আগে কোনো পরামর্শ চেয়েছিল কি না-বিবিসির এই প্রশ্নে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘না। পরামর্শ চাইলে তো আমরা পরামর্শ দিতাম… ঘটনা হচ্ছে যে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ রকম কোনো নির্দেশনা আজ পর্যন্ত জারি করা হয়নি।

‘তারপরও আমার দায়িত্ব হচ্ছে এটার খোঁজ-খবর নেওয়া এবং আমি এ বিষয়ে ইতোমধ্যে খোঁজ-খবর নেওয়া শুরু করেছি। কেন এই ধরনের একটা সমস্যা তৈরি হল, সেটার জন্য আমরা তদন্ত করে দেখছি।’

এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘আইনত আমরা কোনো জিনিসই বন্ধ করছি না এবং করিনি। এখানে অনেক সময় ছোটোখাটো দুর্ঘটনা কিংবা চলার পথে কিছু সমস্যা তৈরি হয়েছে। সেগুলো কিন্তু আমাদের সরকারের কোনো নীতি না।’

গণমাধ্যমের উদ্বেগকে গুরুত্ব দিচ্ছেন জানিয়ে ইনু বলেন, ‘এই ধরনের কোনো সমস্যা যেন তৈরি না হয়, সে জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পাশাপাশি সম্প্রচার আইন আমরা করতে যাচ্ছি এবং সম্প্রচার কমিশন তৈরি করে দেব। সম্প্রচার আইন এবং সম্প্রচার কমিশন হয়ে গেলে গণমাধ্যমের ইলেকট্রনিক ক্ষেত্র যেটা- মানে, রেডিও টিভি আর অনলাইন পত্রিকা- এগুলোর কোনো সমস্যা হবে না। তারা সব সম্প্রচার আইনের আওতায় চলে যাবে এবং সম্প্রচার কমিশনের কাছে চলে যাবে।’

গণমাধ্যমকর্মীদের আশ্বস্ত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা স্বাধীনভাবে কাজ করেন, কোনো অসুবিধা নাই। সরকার সংবিধানকে সমুন্নত রেখে আপনার স্বাধীনতাকে রক্ষা করবে।’-বিডিনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত