প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

শেয়ারবাজারে বড় পতন

মাসুদ মিয়া: দেশের শেয়ারবাজারে রোববার বড় উত্থানের একদিন পর গতকাল তার চেয়েও বড় পতন হয়েছে। একইসঙ্গে কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট দর। তবে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আর্থিক লেনদেন কমলেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেড়েছে।

গত ১৯ জুন থেকে বা ৪ কার্যদিবস শেয়ারবাজার উত্থানে ছিল। ওই সময় ডিএসইর মূল্যসূচক বেড়েছিল ১৮১ পয়েন্ট। এক্ষেত্রে রোববার ৮০ পয়েন্ট বৃদ্ধি সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে। তবে এই উত্থানের পরের দিন সোমবার বড় পতন হয়েছে। এদিন মূলসূচক কমেছে ৮৮ পয়েন্ট। এদিন ডিএসইতে ৬৮৬ কোটি ১০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ আগের দিন ছিল ৭১১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ২৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। এদিকে গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪০টি কোম্পানির মধ্যে ৬১টি বা ১৭.৯৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। আর দাম কমেছে ২৪১টি বা ৭০.৮৮ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টি বা ১১.১৮ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। এ দিন কোম্পানির ২৪ কোটি ৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা মুন্নু সিরামিকের ২২ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২১ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে গ্রামীনফোন।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- কুইন সাউথ টেক্সটাইল, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং, ইউনাইটেড পাওয়ার, খুলনা পাওয়ার ও রেনেটা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৪৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৭৩৪ পয়েন্টে। বাজারটিতে ৮৪ কোটি ১৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। লেনদেন হওয়া ২৫০টি ইস্যুর মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৭টির, কমেছে ১৬৫টির এবং অপরিবর্তীত রয়েছে ২৮টির।

আগেরদিন সিএসইতে ২০১ পয়েন্ট বেড়েছিল। আর বাজারটিতে ৫৬ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত