প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

বিএনপির অভিযোগ
বাছাই করা দলবাজ পুলিশ গাজীপুরে

নিজস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুর সিটি নির্বাচনের কাজে ‘বাছাই করে দলবাজ’ পুলিশ কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে বিএনপি।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, গাজীপুরে সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এখন পর্যন্ত যতটুকু খবর আমাদের কাছে এসেছে- গাজীপুরে বাছাই করে করে দলবাজ পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

প্রায় সাড়ে ১১ লাখ ভোটারের এই সিটি করপোরেশনে মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট হবে। বিএনপি ও আওয়ামী লীগের প্রার্থীসহ মোট সাতজন এ সিটির মেয়র হতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রিজভী বলেন, আমাদের বিশ্বাস, সকল বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে আসবেন। ভোট যদি কিছুটা সুষ্ঠু ও অবাধ হয়, ধানের শীষের বিজয় ঠেকাতে পারবে না। ভোট যদি সুষ্ঠু হয় ধানের শীষ জিতবে, আর ভোট যদি নির্বাচন কমিশনের ভাষায় চমৎকার হয়- তাহলে ভোট ডাকাতি হবে।

সংবাদ সম্মেলনে এই বিএনপি নেতা অভিযোগ করেন, রোববার রাতেও গাজীপুরে তাদের প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে নিয়োজিত ১৩ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

প্রতিটি লোকালয়ে ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরির কাজ সুচারুরূপে চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। পাইকারি হারে গ্রেপ্তার, বাসায় বাসায় তল্লাশি, বিভিন্ন কেন্দ্রে ধানের শীষ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নেতাদের গ্রেপ্তার, নতুন করে মিথ্যা মামলায় হয়রানি, বিভিন্ন জেলা থেকে নিয়ে আসা ডিবি পুলিশের হানাদারি আগ্রাসন চলছে সমভাবে।

ফলে যে ভোট আগামীকাল হতে যাচ্ছে, সেখানে জনগণ তাদের অবাধে পছন্দ অনুযায়ী প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে- এমন কোনো পরিবেশ এখনো দৃশ্যমান নয়। জনগনের মধ্যে উদ্বেগ ও আশঙ্কা গভীরতর হচ্ছে।

নির্বাচন ঘিরে এ পর্যন্ত বিএনপির দেড় শতাধিক নেতা-কর্মীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে অভিযোগ করে অবিলম্বে তাদের মুক্তির দাবি জানান দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

এছাড়া বরিশালের আগৈঝড়া উপজেলার বৈলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হেমায়েত হোসেন তালুকদারকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে না দেওয়া, বান্দরবান জেলা সভাপতি মা ম্যাং চিং ও সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রেজাসহ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা’ মামলা দায়ের, কারাবন্দি অবস্থায় ‘নির্যাতনে’ ঢাকার বংশাল থানার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এরশাদ আলী লাডলার (৩৮) মৃত্যুর ঘটনার নিন্দা জানান রিজভী।

নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে দলের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, এবিএম মোশাররফ হোসেন, আবদুস সালাম আজাদ, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, শামসুজ্জামান সুরুজ, খন্দকার আবু আশফাক উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত