প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুধু কর্মচারী নয়, স্ত্রী এবং শাশুড়ির সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করতেন আনোয়ার

সজিব খান: কেইম্যান আইল্যান্ডের গভর্নর হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার মাত্র চার মাসের মধ্যে ব্রিটেনের বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কূটনীতিক আনোয়ার চৌধুরীকে প্রত্যাহার করার পেছনে তার বিরুদ্ধে কর্মচারীদের সঙ্গে অসদাচরণ ও উত্যক্ত করার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তিনি তার ১৬ বছরের স্ত্রী ও শাশুড়ির সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করতেন বলে দেশটির সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল এ খবর প্রকাশ হয়েছে।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়েছে, আনোয়ার চৌধুরী তার সরকারি ভবনে নিয়োজিত কর্মীদের সঙ্গে চিৎকার করার পাশাপাশি তাদের ভয়-ভীতি দেখান। এক নারী কর্মীকে তিনি তার খোলা পিঠ ম্যাসাজ করে দিতে বলেছিলেন, যা তার কাছে ঠিক মনে হয়নি। যদিও তাতে কোনো যৌন আবেদন ছিল না। এছাড়াও তিনি বাসার কর্মীদের তার শিশু মেয়েকে দেখভাল করতে বলেছিলেন, তবে তাদের দায়িত্ব শুধু বাসা পরিষ্কার করা বলে এড়িয়ে যান তারা। এছাড়া মদ খাওয়া নিয়ে বৃদ্ধা শাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া করেছিলেন বলেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে।

কেইম্যান আইল্যান্ডস বিষয়ক ব্রিটেনের অল-পার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপের সদস্যরা জানিয়েছেন, এই কূটনীতিকের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ সম্পর্কে তারা অবহিত।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আনোয়ার চৌধুরী ২০০৪ থেকে চার বছর ঢাকায় ব্রিটিশ হাই কমিশনার ছিলেন। বাংলাদেশ থেকে ২০০৮ সালে ফিরে গিয়ে আনোয়ার চৌধুরী ২০১১ সাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যের ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিসের ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউশন বিভাগের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে ওই দপ্তরের আরও কয়েকটি পদে কাজ করেন তিনি। ২০১৩ সালে তাকে রাষ্ট্রদূত করে পেরুতে পাঠানো হয়। পেরুতে দায়িত্ব পালন শেষে কেইম্যান আইল্যান্ডসে গিয়েছিলেন আনোয়ার চৌধুরী। যুগান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত