প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোনালদোকে আটকাতে ইরানের অস্ত্র ‘ট্রিপল আর’

স্পোর্টস ডেস্ক: গ্রুপে দু’নম্বরে থাকলেও স্বস্তিতে নেই পর্তুগাল। শেষ ম্যাচে তাদের সামনে ইরান। ড্র করলে নকআউট নিয়ে চিন্তা নেই রোনাদোদের। তবে ইরান জিতে গেলে তারাই যাবে শেষ ষোলোতে। সেক্ষেত্রে পর্তুগিজদের ছুটি হয়ে যেতে পারে।

ইউরো চ্যাম্পিয়ন। ইউরোর মতো বিশ্বকাপে এগোচ্ছে পর্তুগাল। প্রথম ম্যাচ রোনালদোর বীরত্বে ড্র। দ্বিতীয় ম্যাচেও সিআর সেভেনের জাদুতে জয়। গ্রুপের শেষ ম্যাচে পর্তুগালের সামনে এবার ইরান।

ইরান ম্যাচের আগে আর্থিক মূল্যে দুদলের তুলনা টেনেছে পতুর্গালের এক বড় দৈনিক। তাতে দেখা যায়, ফুটবলে পুরো ইরান দলের সম্মিলত দাম ৪৮.৩ মিলিয়ন ইউরো। যেখানে রোনালদোর একার দামই পুরো ইরান দলের দ্বিগুণ! ১০০ মিলিয়ন ইউরো।

তথ্য হিসেবে এটা শুধু মজাদার নয়, বেশ আকর্ষণীয়ও বটে। কিন্তু এই মজার বিপরীতে একটা কর্কশ প্রশ্নও ভাসছে। যেখানে বলা হচ্ছে, পর্তুগাল যতই সিআর সেভেন ইঞ্জিনে নির্ভর করে বিশ্বকাপ দাপাক না কেন তবু পর্তুগালের দ্বিতীয় রাউন্ড যাত্রা নিশ্চিত নয়। বরং গ্রুপের শেষ ম্যাচে তারা এমন এক এশীয় শক্তির সামনে, যারা ব্রাজিল বিশ্বকাপে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনার কালঘাম ঝরিয়ে ছেড়েছিল। আর রাশিয়ায় ঠিক একই কাজ করেছে ডিয়েগো কস্তা-আন্দ্রে ইনিয়েস্তার স্পেনের বিরুদ্ধেও।

পরের রাউন্ডে যেতে হলে ড্র করলেই চলবে পর্তুগালের। সে হিসাবে তেমন চাপ নেই রোনালদোর বাহিনীর। তাদের চিন্তা শুধু দু’টো। ইরানিদের অদম্য ইচ্ছেশক্তি এবং তাদের কোচ। পর্তুগালের সাবেক কোচ কার্লোস কুইরোজ। তিনি যে রোনালদোদের গোপন খবরটা জানেন।

পুরনো শিষ্য আর দল নিয়ে ইরান কোচ বলেছেন, ‘পর্তুগাল শুধু বিশ্বকাপ কাঁপাতে আসেনি। বিশ্বকাপ তারা জিততেও এসেছে! আমি তো বলব ফেভারিট।’

বিশ্বকাপে আসার আগে অনকে বড় বড় ক্লাবে খেলা তারকাদের দেশে রেখে এসেছে। পর্তুগালের প্রসঙ্গ টেনে কুইরোজ বলেন, ‘আমাকে বলুন তো, বিশ্বের কয়টা দল বার্সেলোনা, মোনাকো, ইন্টারের মতো ক্লাব ফুটবলারকে বাইরে রেখে বিশ্বকাপ খেলতে আসার সাহস দেখায়? পর্তুগাল কিন্তু দেখিয়েছে। এটাই বোঝায়, তারা কতটা ভয়ঙ্কর দল। যে টিমে রোম্যান্স আছে। বাস্তবতাবোধ আছে। বিপক্ষকে সম্মান দেয়া আছে। আছে সাহস, কাঠিন্য, দায়বদ্ধতা আর একজন রোনালদো।’

এমন প্রশংসার পরই শক্তিশালী পর্তুগালকে ঠেকানোর অস্ত্রের কথা জানান কুইরোজ। যে ‘ট্রিপল আর’ অস্ত্র তিনি পর্তুগিজ শিবির থেকেই নিতে চাচ্ছেন। সেটা হল রোম্যান্স, বাস্তবতাবোধ আর সম্মান (রোমান্টিসিজম, রিয়ালিজম এবং রিসপেক্ট)।
চ্যানেলআই অনলাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত