প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শতাব্দীতে এক-দুজনই হয়

ড. এ এস এম আমানুল্লাহ : চেতনার উপনিবেশীকরণ, ক্ষমতা লেহনের রাজনীতি, জাতিতত্ত্ব, জাতীয়তাবাদ, এই অঞ্চলের সংগ্রামী মানুষের জীবনকথা, শ্রেণী সংগ্রাম ইত্যাদি বিষয়ে সহজ-সরল ভংগিতে যদি কেউ বাংলার সামাজিক ইতিহাস লিখে থাকেন, তাহলে অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর নাম আসবেই আসবে। ছোটবেলা থেকেই আমি সংবাদের ‘গাছপাথর’কে খুঁজে বেড়াতাম। গাছপাথরের কোন কিস্তি পড়ি নাই এমনটা সচরাচর হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সাবসিডিয়ারী এবং আরো কিছু ইংরেজি কোর্স করতে গিয়ে প্রথম স্যারের সাথে দেখা, প্রথম গাছপাথরের সাথে সাক্ষাৎ, জীবনে প্রথম একজন নির্লোভ মানুষের দর্শন।

আমরা সবাই অধ্যাপক কিন্তু সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, আহমদ শরীফ কিংবা বদরুদ্দীন উমররা শতাব্দীতে এক-দুজনই হয়। আমার অনেক বন্ধুর কিছু মৃদু সমালোচনা রয়েছে উনাদের মত এবং পথের তরিকা নিয়ে কিন্তু আমি এবং আমার মতো নিশ্চয়ই আপনারাও একমত হবেন যে এই মনীষীরা এক একজন একেকটা প্রতিষ্ঠানে পরিণত মধ্যবিত্ত বাংগালীর মনন গঠনে অবদান রাখতে পেরেছেন। তাদের এই অবদান হতে পারে খন্ডিত! কিন্তু কলকাতা কেন্দ্রিক বাংগালী বুদ্ধিজীবীদের খপ্পর আমাদেরকে উদ্ধার করতে উনাদের প্রচেষ্টা অনেকটাই সফল বলে ইতিহাসে বিবেচিত হবে, আমার বিশ্বাস।

তিরাশিতম জন্মদিনে স্যারের প্রতি রইল নিরন্তর শুভেচ্ছা।

পরিচিতি: অধ্যাপক, সমাজবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়/সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত