প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

সেনেগালের বিপক্ষে সমতা এনেই বিরতিতে গেল জাপান

স্পোর্টস ডেস্ক : ১১ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ল জাপান। সেনেগালের অধিনায়ক সাদিও মানে গোল করে আফ্রিকানদের উৎসবে মাতালেন। কিন্তু এশিয়ান দল জাপান প্রথম ম্যাচের জয়ে আরো উজ্জীবিত। ছেড়ে কথা বলছে না। ৩৪ মিনিটেই তাকাশি ইনুইয়ের গোলে সমতা এনে ফেলে তারা। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের ‘এইচ’ গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে সেনেগাল ও জাপান বিরতিতে গেছে ১-১ গোলের সমতা নিয়ে। যেভাবে গতিময় খেলা চলছে তাতে দ্বিতীয়ার্ধের জন্য নিশ্চিতভাবে আরো রোমাঞ্চ অপেক্ষায়।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরুর আগে ‘এইচ’ গ্রুপ নিয়ে সবার ভাবনাটা ছিল অন্যরকম। ওখানে কলম্বিয়া আর পোল্যান্ডকে ফেভারিট ধরা হয়েছিল। আর জাপান ও সেনেগালকে একটু পিছিয়ে রাখা হয়েছিল। অথচ এই গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচে জাপান আর সেনেগালই জিতেছে। গ্রুপের হিসেব গেছে পাল্টে। রোববার একাতেরিনবার্গে এই গ্রুপের খুবই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সেনেগালের মুখোমুখি হয়েছে এশিয়ার জাপান। শেষ ষোল নিশ্চিত করার লড়াইয়ে এবং গ্রুপের জন্য এই ম্যাচের ফল বড়ই গুরুত্ব রাখবে। বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় মুখোমুখি হবে পোল্যান্ড ও কলম্বিয়া।

কিন্তু এই ম্যাচে শুরুতেই ঠিক এভাবে গোল হবে ভাবতেও পারেননি কেউ! অবশ্য এবারের বিশ্বকাপে শুরুতেই গোল হওয়ার প্রবণতা বেশ বেশি। সেটা থেকে বাদ গেল না জাপান-সেনেগাল ম্যাচটিও। ডান পাশ থেকে আক্রমণ ছিল সেনেগালিজদের। উইঙ্গার ইসমাইলা সার ডান পাশ থেকে আক্রমণ সাজান। মোল্লা ওয়াগু বক্সের ওপাশ থেকে ক্রস করেন বাঁ পাশে। ওখানে গোলপোস্টের পাশ থেকে হেডে ক্লিয়ার করতে গিয়ে বলটা উইঙ্গার জেনকি হারাগুচি ডিফেন্ডার ইউসুফ সাবালির সামনে ফেলেন। তিনি গোলে শট নেন। গোলকিপার এইজি কাওয়াশিমা ঠেকালেন। কিন্তু তার ঠেকানো বল সামনে দাঁড়ানো সেনেগাল অধিনায়ক সাদিও মানের পায়ের সামান্য ছোঁয়ায় জালে গিয়ে জড়ায়। হতভম্ব জাপানিজরা। কিন্তু ৩৪ মিনিটে জবাব দেয় তারা। আনে সমতা।

জাপানের আগ্রাসী আক্রমণের মুখো ধৈর্য্য দেখাচ্ছিল সেনেগাল। নিজেরাও দারুণ গতিতে আক্রমণে উঠে যাচ্ছিল। কিন্তু ৩৪ মিনিটে যে গোলটি জাপান পেল এবং সমতা আনল তাতে ডিফেন্ডার ইয়তো নাগাতোমোর অবদান মনে রাখতে হবে। বাঁ পাশ থেকে গড়ে ওঠা আক্রমণের শেষ বলটা বানিয়ে দিয়েছেন তিনিই। অফ সাইড ট্র্যাপ ভেঙেছেন দারুণ চতুরতায়। একেবারে শেষের দিকে গিয়ে বলটা পাস করেছেন ইনুইকে। প্রায় ১৫ গজ দূর থেকে নিচ শট নিয়েছেন। জোর ছিল সেই শটে। ইনুইয়ের সেই শট ঠেকাতে পারেননি সেনাগালের গোলরক্ষক এন’দিয়াই। স্বস্তির উৎসব তাতে।

কিন্তু সেনেগালের বিপক্ষে আগের ৩ প্রীতি ম্যাচের দেখায় একবারও জেতেনি জাপান। বিশ্বকাপে এই প্রথম দেখা। ব্লু সামুরাইরা নতুন ইতিহাস লিখতে পারবে তো? তাছাড়া ইতিহাস বলছে, বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে কোনো এশিয়ান দলের টানা দুই ম্যাচে জয়ের রেকর্ড নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত