প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

সিবিট সম্মেলনে হুয়াওয়ের ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন প্রদর্শন

স্বপ্না চক্রবর্তী : সম্প্রতি জার্মানীতে শেষ হওয়া “সিবিট” সম্মেলনে অংশীদার ও কাস্টমারদের সহায়তায় ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনের বিভিন্ন সল্যুশন প্রদর্শন করেছে শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

রোববার প্রতিষ্ঠানটি একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সম্মেলনে তারা ক্লাউড কম্পিউটিং, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই), বিগ ডেটা, ইন্টারনেট অব থিংকস (আইওটি) এবং সফটওয়্যার ডিফাইন্ড নেটওয়াকিং (এসডিএন) প্রদর্শন করে, যা বর্তমানে ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। ‘লিডিং নিউ আইসিটি, দি রোড টু ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন’ স্লোগানকে সামনে রেখে ওই সম্মেলনে হুয়াওয়ে তাদের নতুন নতুন ডিজিটাল উদ্ভাবন প্রদর্শন করে। এমনকি প্রতিষ্ঠানের নতুন ভিশন, প্রযুক্তি, প্ল্যাটফর্ম, ইকোসিস্টেম উন্নয়ন (যেমন: ক্লাউড কম্পিউটিং, আইওটি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, বিগ ডেটা, উন্নততর ডেটা সেন্টার, এন্টারপ্রাইজ ক্যাম্পাস, ইএলটিই এবং এন্টারপ্রাইজ কমিউনিকেশন সল্যুশন) তুলে ধরে। এসব সল্যুশন বিভিন্ন খাতে (যেমন: স্মার্ট সিটি, এয়ারপোর্ট, ফাইন্যান্স, বিদ্যুৎ এবং উৎপাদন ব্যবস্থা) ব্যবহার করা হচ্ছে।

হুয়াওয়ের এন্টারপ্রাইজ বিজনেস গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ইয়ান লিডা এ ব্যাপারে জানান, ইউরোপীয় গানের সুর তৈরিতে জার্মানি যেমন বিখ্যাত তেমনি ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন তৈরিতে হুয়াওয়ে বিখ্যাত। হুয়াওয়ে তাদের গ্রাহক ও অংশীদারদের সাথে নিয়ে ক্লাউড-পাইপ-ডিভাইস নীতির মাধ্যমে গ্রাহকদের এবং অংশীদারদের সাথে সামঞ্জস্য রেখে কাজ করে। বিভিন্ন শিল্পে আমাদের বিশ্বব্যাপী সর্বোত্তম অনুশীলনের উপর ভিত্তি করে হুয়াওয়ের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, আমাদের অংশীদারদের অ্যাপ্লিকেশন এবং টার্মিনাল মাধ্যমে, পাশাপাশি ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন থেকে গ্রাহক সুবিধা প্রদর্শন করতে গ্রাহকদের এবং অংশীদারদের সাথে কাজ করা হয় বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, এই সম্মেলনে হুয়াওয়ে প্রথমবারের মতো স্মার্ট সিটির ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম প্রদর্শন করেছে। এই প্ল্যাটফর্মে মূলত পাঁচটি মৌলিক বিষয়কে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হলো ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি), বিগ ডেটা, জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সিস্টেম (জিআইএস) ম্যাপ, ভিডিও ক্লাউড এবং সমন্বিত যোগাযোগ। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি স্মার্ট এয়ারপোর্ট সল্যুশনের ধারাবাহিকতায় এবার স্মার্ট এয়ারপোর্ট ২.০ সল্যুশন প্রদর্শন করেছে। এর মৌলিক বিষয়বস্তু হলো- নতুন নতুন প্রযুক্তি (ইন্টারনেট অব থিংস, বিগ ডেটা, ক্লাউড কম্পিউটিং)। একটি এয়ারপোর্টের তথ্য প্রবাহের উন্নয়নের জন্যই এই সল্যুশনটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেখানে এয়ারপোর্টের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। এছাড়াও এ সল্যুশনের আওতায় এয়ারপোর্টের পরিচালন সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এবং বোর্ডিং প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যাত্রীদের আরও ভালো অভিজ্ঞতা দিবে। স্মার্ট এয়ারপোর্ট ২.০ সল্যুশনে প্রযুক্তি লিংকগুলোতে বেশি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, যেগুলোর মধ্যে রয়েছে- ভিডিও সার্ভিলেন্স, বিগ ডেটা, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং ইন্টারনেট অব থিংস।

প্রসঙ্গত, সিবিট সম্মেলনে হুয়াওয়ে আইসিটি প্রতিযোগিতা ২০১৮-১৯ সেশন ঘোষণা করেছে। ২০১৫ সালে শুরু হওয়ার পর থেকে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে। গত বছর (২০১৭-১৮) হুয়াওয়ের আইসিটি প্রতিযোগিতা অত্যন্ত সফলতার সাথে শেষ হয়েছে। ওই প্রতিযোগিতায় ৩২টি দেশের ৮০০ কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ৪০ হাজার প্রতিযোগী অংশ নেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত