প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চোরাই মোটরসাইকেল-অস্ত্র ও গুলিসহ ৯ ডাকাত গ্রেফতার

সুজন কৈরী: রাজধানীর ডেমরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে চোরাই মোটরসাইকেল, অস্ত্র ও গুলিসহ ডাকাত দলের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা (ডিবি) উত্তর বিভাগের একটি টিম। গ্রেফতারকৃতরা হলো- সালিম উদ্দিন আহম্মেদ ওরফে সবুজ (৩৫), মোঃ রনি (৩৫), মোঃ টিপু (২৪), বাপ্পি সরকার (২৩) ও মোঃ সালাউদ্দিন ফকির (২৩)।
রোববার বেলা সাড়ে ১১ টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য্য।

তিনি বলেন, শনিবার রাতের দিকে ডেমরা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় সবুজের দেহ তল্লাশী করে ২টি রিভলবার ও ২২ রাউন্ডগুলি এবং অন্যান্যদের নিকট হতে ৮টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত রনি ও টিপু মোটরসাইকেল চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য। তাদের নেতা দ্বীন ইসলাম (পলাতক) ও সবুজ। তারা বিভিন্ন বাসা বাড়ী, পার্কিং এলাকায় রেখে যাওয়া মোটরসাইকেলের লক্ ভেঙ্গে অথবা রাস্তায় মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মোটরসাইকেল চুরি ও ছিনতাই করে। পরবর্তী সময় চোরাই গাড়ীর ইঞ্জিন নম্বর ও চেসিস নম্বর পরিবর্তনের মাধ্যমে ভূয়া কাগজ তৈরী করে এবং দালালের মাধ্যমে কম মূল্যে বিক্রয় করে। তাদের সহযোগী পলাতক দ্বীন ইসলামের নেতৃত্বে ডাকাতি ছিনতাইসহ চোরাই ও ছিনতাইকৃত মোটরসাইকেল কেনা বেচা করে থাকে। দ্বীন ইসলামকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে অপর এক অভিযানের বিষয়ে ডিবি প্রধান বলেন, শনিবার রাতের দিকে ডেমরার রাণীমহল সিনেমাহলের সামনে গলাকাটা ব্রীজের উপর থেকে ডিবি পুলিশের সিরিয়াস ক্রাইম বিভাগ ৪টি দেশীয় অস্ত্র ও ১টি পিকআপ ভ্যানসহ ৪ জন ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- মোঃ আমজাদ ওরফে আলমগীর, মোঃ মূসা মাতব্বর, মোঃ আলমগীর ও ওমর ফারুক। তাদের কাছ থেকে ১টি চাপাতি, ২টি ছোরা, ১টি চাকু ও ১টি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান, দেশের বিভিন্ন এলাকা হতে ঢাকায় আগত মাছের পিকআপ বা ট্রাককে টার্গেট করে তারা উদ্ধারকৃত পিকআপ দিয়ে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। তারপর অস্ত্রশস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মাছের পিকআপ থেকে মাছগুলো ডাকাতি করে নিজেদের পিকআপে করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে সে মাছগুলো তারা বিক্রি করে থাকে।

এছাড়া ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা সিরিয়াস ক্রাইম বিভাগ অন্য একটি অভিযানে পশ্চিম শেওড়া পাড়া থেকে ২টি পিস্তল ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ নূরুল আমীন নামের ১ জন ভূয়া ডিবি পুলিশকে গ্রেফতার করে।

তাদের সকলের বিরুদ্ধে থানায় পৃথক পৃথক মামলা রুজু হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে নগরবাসীকে আহবান জানিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য্য বলেন, যাদের মোটর সাইকেল চুরি, ছিনতাই বা ডাকাতি হয়েছে, তাদের মোটর সাইকেল উদ্ধারকৃত মোটর সাইকেলের মধ্যে থেকে থাকলে থানায় মামলা করে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ করুন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত