প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

আর্জেন্টিনাকে বিদায় ঘন্টা বাজিয়ে দিবেন মুসা

স্পোর্টস ডেস্ক: নাইজেরিয়ার আইসল্যান্ড-বধের নায়ক তিনি। জোড়া গোল করে নাইজেরিয়ার শেষ ষোলোর আশা উজ্জ্বল করেছেন আহমেদ মুসা। নাইজেরিয়ার জয়ে নকআউট পর্বে যাওয়ার স্বপ্ন টিকে রয়েছে আর্জেন্টিনারও। মুসার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে দিয়েগো ম্যারাডোনার দেশের শেষ ষোলোতে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হওয়ায় আর্জেন্টাইন ভক্তরা তাকে ডাকছেন ‘লিওনেল মুসা’ নামে।

আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে আর্জেন্টাইন ভক্তরা মুসার পক্ষে গলা ফাটিয়েছেন। আবারও এই আর্জেন্টাইন ভক্তরাই মেসিদের সঙ্গে লড়াইয়ের দিনে মুসার বিপক্ষে গলা ফাটাবেন। আর্জেন্টাইন ভক্তদের প্রার্থনা এবার নাইজেরিয়াকে হারানোর।

নাইজেরিয়া খেলেছে নিজেদের জন্যই। এখন আর্জেন্টিনাকে হারাতে পারলেই নাইজেরিয়ার শেষ ষোলো নিশ্চিত। ড্র করলেও তাদের সম্ভাবনা থাকছে। সেখানে আর্জেন্টিনার সামনে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। মেসিদের বিপক্ষে গোল করা কঠিন কিছু নয় বলেই ধারণা মুসার।

আইসল্যান্ডকে হারানোর পর মুসা বলেন, ‘আমরা জানি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। এই ম্যাচটি আমাদের বাঁচা-মরার লড়াই। আমাদের এই ম্যাচে অবশ্যই জিততে হবে। আমি মনে করি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গোল করা কঠিন কিছু নয়।’

এখনও জটিল সমীকরণ গ্রুপ ‘ডি’তে। ক্রোয়েশিয়ার পরের রাউন্ড নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর আর্জেন্টিনা, নাইজেরিয়া ও আইসল্যান্ড- তিন দলেরই সম্ভাবনা আছে শেষ ষোলোতে যাওয়ার। ?মুসা অবশ্য নিজেদের ব্যাপারে ভীষণ আত্মবিশ্বাসী।

আর্জেন্টাইনরা তাকে ‘লিওনেল মুসা’ নামে ডাকলেও লাতিন দেশটির ভক্তদের হৃদয়ে ছুরি বসিয়ে শেষ ষোলোতে যাওয়ার উৎসব করতে চাইছেন তিনি। দুই আসর মিলিয়ে বিশ্বকাপে এখন মুসার চার গোল। ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসরে নাইজেরিয়ার সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন তিনি।

সংখ্যাটা আরও বাড়িয়ে নিতে চান আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে। যার সঙ্গে তুলনায় দাঁড় করানো হচ্ছে তাকে, সেই আসল মেসিকে সতর্কবার্তাও পাঠিয়েছেন সিএসকেএ মস্কো ফরোয়ার্ড।

২০১৪ বিশ্বকাপে এই আর্জেন্টিনার বিপক্ষেই দুটি গোল করেছিলেন মুসা। সেবার অবশ্য মেসির দল ৩-২ গোলের রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছিল। মেসির বিপক্ষে আরও গোল করার নজির রয়েছে মুসার। ২০১৬ সালে লেস্টার সিটির হয়ে বার্সেলোনার বিপক্ষে দুটি গোল করেন মুসা।

সংবাদ সম্মেলনে মুসাকে মেসির সঙ্গে তুলনা করায় সবাইকে ধন্যবাদ দিয়েছেন তিনি। নাইজেরিয়ার এই তারকা ফুটবলার বলেন, ‘অসংখ্য ধন্যবাদ (মেসির সঙ্গে তুলনায়)! যখনই আমি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে খেলি এবং মেসি থাকে, তখন আমার চার বছর আগের কথা মনে পড়ে যায়। ব্রাজিলে মেসির বিপক্ষে আমি দুই গোল করেছিলাম। এরপর লেস্টার সিটিতে যাওয়ার পর বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলেছিলাম, সেখানেও করেছিলাম আরও দুই গোল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত