প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানচিত্র ও মানুষের প্রতীকী উপস্থাপন পতাকা

ওয়াহিদ তুষার : লাখো শহীদের রক্তে, অজ¯্র সম্মান আর ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের দেশ। তারই প্রতীকী উপস্থাপন মানচিত্র ও পতাকা। গৃহ, কর্মস্থল ও পরিবহনে বিদেশি পতাকার ব্যবহার সেই লাল-সবুজ পতাকারই অপমান। একটি দেশ মানে মানচিত্র। মানচিত্র মানে মানুষ। আর এই মানচিত্র ও মানুষের প্রতীকী উপস্থাপন পতাকা। পতাকা সে দেশের সংস্কৃতি ও সভ্যতাকে ধারন ও বহন করে। প্রতিটি পতাকার ইতিহাস আছে। একটা ঐতিহ্যের গল্প আছে, কোন পতাকাকে হাতে বহন করা মানে, সে দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে সমর্থন জানানো।

পতাকা হাতে নিলেই স্মৃতিপটে জ্বলজ্বল করে সেই পতাকা অর্জনের ইতিবৃত্তি। আজকের ফুটবলবিশ্বের অনেক সমর্থন কিছুটা অন্ধ। আমরা ভুলে যাই আমাদের কিছু সমর্থন স্বদেশপ্রীতিকে অবমাননা করে। আমাদের অজান্তে, উদাসীনতার কারণে অথবা সচেতনতার অভাবে অথবা বাড়াবাড়ি রকমের সমর্থন প্রক্রিয়ায় আমরা প্রতিনিয়ত হেয় করছি রক্তের দামে কেনা লাল-সবুজের পতাকাকে। আইন পরিপালন অধিকতর জরুরি। মনে রাখতে হবে, সবার উপরে দেশ। সবার উপরে লাল-সবুজের পতাকা। সবার উপরে আমাদের জাতীয়তা। একথা সত্য, আইন বানিয়ে কিংবা গণজোয়ারের বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগ করে দীর্ঘমেয়াদি ভালো ফল পাওয়া খুবই কষ্টকর।

ফলে, সবার আগে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। মানুষকে আমাদের পতাকার আবেগের প্রকৃত গল্প শোনাতে হবে। প্রচার করতে হবে, পতাকা কী এবং কিভাবে তার মান রাখতে হয়। এই প্রচার কার্যক্রমে সরকারকে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। আর বেসরকারি সংগঠনগুলোকে উৎসাহিত করতে হবে, তারা যেন গণসচেতনতা সৃষ্টিতে ইতিবাচক ভূমিকা রাখে। প্রক্রিয়া যাই হোক, পতাকার অসম্মান বন্ধ করতে হবে। বন্ধ করতে হবে আইনের লঙ্ঘন। এবং তা আজই। আইন ও জাতীয় আবেগের চেয়ে ব্যক্তিগত আবেগ কোনো অবস্থাতেই বড় হতে পারে না।

পরিচিতি : প্রচার সম্পাদক, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক যুব আন্দোলন / মতামত গ্রহণ : মো. এনামুল হক এনা / সম্পাদনা  মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত