প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

আ.লীগ ফেনী ও হাজারী মার্কা নির্বাচনে বিশ্বাসী : রিজভী

শিমুল মাহমুদ: বর্তমান সরকার বিএনপির মতো নির্বাচন প্রক্রিয়ায় বিশ্বাসী নয় বলে মন্তব্য করেছে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, বিএনপি‘র মতো নির্বাচন প্রক্রিয়ায় বিশ্বাস করে না আওয়ামী লীগ। বিএনপি বহুদলীয় বিশ্বাস করে, আওয়ামী লীগ একদলীয় বাকশালে বিশ্বাস করে। বিএনপি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচরে নিশ্চয়তা দেয়। আওয়ামী লীগ ফেনী মার্কা নির্বাচন, হাজারী মার্কা নির্বাচন, প্রতিদ্বন্দিতাহীন নির্বাচনে বিশ্বাস করে।

শনিবার (২৩ জুন) দুপুরে নয়াপল্টনস্থ দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে অকুতোভয় উচ্চারিত কুৎসীত, অসংযোমী বাক্যবিলাশে লিপ্ত আর বিএনপি সৌজন্যবোধ ও হিতাহীত জ্ঞানসম্পন্ন বক্তব্য বিবৃতি প্রদান করে। আওয়ামী নির্বাচন কমিশনকে নিজেদের ভোট কারচুপির সীলমোহর বানায়, বিএনপি কমিশনের স্বাধীন সত্ত্বা কখনোই ক্ষুন্ন করেনি। গণতান্ত্রিক পদ্ধতির প্রধান শর্ত আলোচনা ও সংলাপ- যা আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে না। বিএনপি সমঝোতার মাধ্যমে গণতান্ত্রিক পদ্ধতি অব্যাহত রাখায় বিশ্বাসী। আওয়ামী নেতারা শোনে কম, বলে বেশি। বিএনপি নেতারা বলে কম, শোনে বেশি। আওয়ামী নেত্রী ক্ষমতায় চিরস্থায়ী থাকার গ্যারান্টি হিসেবে পাশ্ববর্তী দেশকে নিজে দেশের সার্বভৌমত্ব দূর্বল করে অনেক কিছু উজাড় করে দিয়েছেন আর বিএনপি নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার জন্য জনগণের ওপর নির্ভর করে। সুতরাং বিএনপি‘র প্রক্রিয়া আর আওয়ামী লীগের প্রক্রিয়া এক নয়। আমার মনে হয় উল্লিখিত কথাগুলি জনগণের মাথায় খুব ভালভাবেই গেঁথে আছে।

গতকাল গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, আমি মনে করি এতদিনে যথার্থই উপলব্ধি করেছেন যে, তাঁর এবং সরকারের প্রতি ভোটারদের আস্থা নেই। লুটপাট, দখল, ডাকাতি, ব্যাংকের টাকা তসরুপ, খুন, জখম, বেআইনি হত্যা, গুম, সন্ত্রাসীদের লালন পালন, ভোট জালিয়াতী এবং একের পর এক ভোটারবিহীন নির্বাচন করাতে ভোটারদের আস্থা শুন্যের কোঠায় চলে গিয়েছে। এখন প্রধানমন্ত্রীর আর একটু উপলব্ধি করতে পারলে দেশের গণতন্ত্রের জন্য মঙ্গলজনক হবে। সেটি হলো, নিজের ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা । তাহলেই কেবলমাত্র কিছুটা ভোটারদের আস্থা ফিতে আসতে পারে। শেখ হাসিনা ক্ষমতা কুক্ষিগত রাখলে কখনোই অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য হচ্ছে জনগণের মন ভুলিয়ে ক্ষমতায় এসে একদলীয় বাকসালের মাধ্যমে নিষ্ঠুর ফ্যাসিবাদ কায়েম করা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত