প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ওপেকের বৈঠককে সামনে রেখে বেড়েছে জ্বালানী তেলের দাম

আসিফুজ্জামান পৃথিল: অপরিশোধিত জ্বালানী তেলের উৎপাদন সীমা বেঁধে দেয়ার জন্য শুক্রবার অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় বৈঠকে বসেছে ওপেকভূক্ত দেশগুলো। এই বৈঠককে সামনে রেখে বিশ্বজুড়ে বেড়ে গেছে অপরিশোধিত জ্বালানী তেলের দাম।

নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে সুইট ক্রুডের দর ব্যারেলপ্রতি ১.৩ শতাংশ বা ৮২ সেন্টস বেড়েছে। শুক্রবার প্রতি ব্যারেল ক্রুড বিক্রি হয়েছে ৬৬.৩৬ ডলারে। ব্রেন্ট ক্রুডের দরও বেড়েছে ১.৩ শতাংশ বা ৯৮ সেন্টস। শুক্রবার স্থানীয় সময় সকালে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্টের দর ছিলো ৭৪.০৩ ডলার। এর আগে বৃহষ্পতিবারই ২০১৭ এর এপ্রিলের পর ব্রেন্টের দর রেকর্ড পরিমান কমে যায়। এক রাতেই দর কমে যায় ২.৩ শতাংশ।

ভিয়েনায় ওপেকের এই বৈঠক নির্ধারিত সময়ের থেকে এক ঘন্টা দেরীতে শুরু হয়। কারণ সৌদি তেল মন্ত্রী খালিদ আল-ফালিহ এবং ইরানি তেলমন্ত্রী বিজান জাগানেহ বৈঠকের পূর্বে একটি ত্বিপাক্ষিক বৈঠকে বনেছিলেন বলে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে। বৈঠক শেষে আল-ফালিহ জানিয়েছেন তার দেশ প্রতিদিন ১ মিলিয়ন ব্যারেল তেল উৎপাদনের সিদ্ধান্তে অটুট থাকবে। তবে বেশ কিছু দেশ এই ব্যাপারে একমত নাও হতে পারে। আর জাগানেগ জানিয়েছেন তার দেশ ১ মিলিয়ন ব্যারেল উৎপাদনের প্রস্তাবের সংস্কার চায়। তবে তিনি এর বিস্তারিত কিছু জানাননি।

এনার্জি ফিউচারস এর পরিচালক রবার্ট ইয়াওগার জানিয়েছেন প্রস্তাব দেয়া হলেও প্রতিদিন ৬ লাখ ব্যারেলের বেশী তেল উৎপাদন সম্ভব নয়। কারণ ইরান, ইরাক এবং ভেনিজুয়েলার অতিরিক্ত উৎপাদনের সুযোগ বা ইচ্ছা কোনটাই নেই। ইরান এবং ভেনিজুয়েলা শুরু থেকেই এই প্রস্তাবের বিরোধীতা করে আসছে। তবে সৌদি আরব এবং রাশিয়া অতিরিক্ত উৎপাদনের ব্যাপারে নিজেদের অবস্থানে অনড় রয়েছে। – মার্কেট ওয়াচ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত