প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন যারা

আবুল বাশার নূরু : ১৯৪৯ সালের ২৩ ও ২৪ জুন ঢাকার কে এম দাস লেনের বশির হুমায়ুনের বাসভবন রোজ গার্ডেনে আয়োজিত এক সম্মেলনের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেছিল পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলীম লীগ। যা বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নামে পরিচিত। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেছিলেন আতাউর রহমান খান। দলটির প্রথম সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। আর সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন শামসুল হক। শেখ মুজিবুর রহমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন।

১৯৫৩ সালের ১৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয় দলটির ২য় কাউন্সিল। পুরান ঢাকার মুকুল সিনেমা হলে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী সভাপতি এবং শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৫৫ সালের ২১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের ৩য় কাউন্সিল। সদরঘাটের রূপমহল সিনেমা হলে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে মুসলীম শব্দ বাদ দিয়ে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ নামকরণ করা হয় দলটির। মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী সভাপতি ও শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৫৬ সালের ১৯ ও ২০ মে রূপমহল সিনেমা হলে অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের ৪র্থ কাউন্সিল। মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী সভাপতি ও শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। দলটির ৫ম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয় টাঙ্গাইলের কাগমারীতে। ১৯৬৪ সালের ৬ ও ৭ মার্চ হোটেল ইডেনে অনুষ্ঠিত কাউন্সিল মাওলানা আব্দুর রশীদ তর্কাবাগিশ সভাপতি এবং শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

১৯৬৬ সালের ১৮ মার্চ আওয়ামী লীগের ৭ম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। হোটেল ইডেনে অনুষ্ঠিত এই কাউন্সিলে শেখ মুজিবুর রহমান সভাপতি এবং তাজউদ্দিন আহমেদ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালের ৪ জুন হোটেল ইডেনে অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের ৮ম কাউন্সিল। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সভাপতি এবং তাজউদ্দিন আহমেদ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ৮ এপ্রিল আওয়ামী লীগের ৯ম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সভাপতি এবং জিল্লুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭৪ সালের ১৮ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের ১০ম কাউন্সিলে এএইচএম কামরুজ্জামান সভাপতি এবং জিল্লুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক হয়েছিলেন সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দিন। ১৯৭৮ সালের ৩, ৪, ও ৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে আব্দুল মালেক উকিল সভাপতি ও আব্দুর রাজ্জাক দলটির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৮১ সালের ১৩, ১৪ ও ১৫ ফের্রুয়ারি অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও আব্দুর রাজ্জাক সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।১৯৮৭ সালের ১, ২ ও ৩ জুন অনুষ্ঠিত ১৪তম কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালের ১৫তম কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও জিল্লুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৭ সালের ৬ ও ৭ মে অনুষ্ঠিত ১৬তম কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও জিল্লুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০০২ সালের ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ১৭তম কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও আব্দুল জলিল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালের ২৪ জুলাই কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক হন। ২০১২ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালের১০ ও ১১ জুলাই অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে শেখ হাসিনা সভাপতি ও ওবায়দুল কাদের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত