প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পূর্বাচলে ৫২ একর জমি পেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ডেস্ক নিউজ: উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম সম্প্রসারণের লক্ষ্যে দ্বিতীয় ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার জন্য পূর্বাচলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনূকুলে ৫১ দশমিক ৯৯ একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এএসএম মাকসুদ কামাল ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে বরাদ্দপত্রটি তুলে দেন রাজউক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুর রহমান।

রাজউকের উপপরিচালক হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত বরাদ্দপত্রে বলা হয়েছে, উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার জন্য পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের ১২ নং সেক্টরের ২০৩ নং রাস্তায় ৬ নং প্লটটি কম/বেশি ৪২ দশমিক ৪৭ শতাংশ জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সেকেন্ডারি স্কুলের জন্য ১২ নং সেক্টরের ২০৩ নং রাস্তায় ৬/এ নং প্লটের ৩ দশমিক ৯১ একর, ১২ নং সেক্টরের ২০৩ নং রাস্তায় ৬/সি নং প্লটে ৩ দশমিক ৯৬ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি খেলার মাঠের জন্য ১২ নং সেক্টরের ২০৩ নং রাস্তার ৬/বি নং প্লটে ১ দশমিক ৬৫ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। অর্থাৎ চারটি প্লটে ৫১ দশমিক ৯৯ একর জমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

বরাদ্দপত্রে আরো বলা হয়েছে, প্রাতিষ্ঠানিক প্লটের নির্ধারিত মূল্য কাঠাপ্রতি ১৫ লাখ টাকা প্রদান করতে হবে।

জমি বরাদ্দের বিষয়ে অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, প্রতিষ্ঠাকালীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাপ্তির তুলনায় ভূমির পরিমাণ অনেক বেশি ছিল। কিন্তু কালের পরিক্রমায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিধি বাড়লেও ভূমির পরিমাণ কমে এক-তৃতীয়াংশে এসে দাঁড়িয়েছে। যুগের চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিশ্বের নামকরা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের ক্যাম্পাস সম্প্রসারণ করে থাকে। আমরাও একইভাবে পূর্বাচলে দ্বিতীয় ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার দিকে এগোচ্ছি। শতবর্ষ সামনে রেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপদান করাই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য।

এ প্রসঙ্গে উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বলেন, এটি অত্যন্ত খুশির খবর। সময়ের পরিক্রমায় আমাদের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভাগ-ইনস্টিটিউটের সংখ্যা বেড়েছে। এজন্য দ্বিতীয় ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার বিষয়টি খুবই জরুরি। আগামী রোববারই জমির অর্থছাড়ের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি পাঠাব। আশা করছি, দ্রুতই এসব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারব। সূত্র: বণিক বার্তা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত