প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হবে, হবে না!

মোহাম্মদ জমির : রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক, আমাদের নয়। বারবার এ জনগোষ্ঠী মিয়ানমার সামরিক সরকার কর্তৃক বিপদগ্রস্ত হয়ে এখানে এসেছে, আমরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। মানবিক বাংলাদেশ তার চরিত্র ঠিক রেখেছে তাদেরকে মানবিক আশ্রয় দিয়ে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া আমাদের কোনো ভুল সিদ্ধান্ত ছিল না। আমি মনে করি, তাদের আশ্রয় দেওয়া ঠিকই ছিল।

সংকট যেখানে, সমাধানও সেখানে। আমরা বিশ্বাস করি সংকটের সমাধান হবে। সংকট নিরসনে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিশ্বকে আমরা বলেছি আমাদের উদ্যোগ সম্পর্কে। জাতিসংঘকেও আমরা পাশে রেখেছি। জাতিসংঘসহ অনেক ব্যক্তি, রাষ্ট্র ও সংগঠনও বলছে, রোহিঙ্গারা যদি বলে ফেরত যাওয়ার ইচ্ছে তাদের নেই তাহলে জোর করে ফেরত পাঠানো যাবে না। কিন্তু কথা হচ্ছে বাংলাদেশ কি রোহিঙ্গাদের জোর করে পাঠাবে কি পাঠাবে না তা নিয়ে বড় রকমের প্রশ্ন আছে।

আমরা জানি, রোহিঙ্গাদের চোখের সামনে তাদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। হত্যাযজ্ঞ চালানো হয়েছে। ধর্ষণ, লুটপাট করা হয়েছে। এরকম পরিস্থিতি দেখার পরও কেন তারা ফেরত যাবে সেখানে। যেখানে তার মা-বাবাকে হত্যা করেছে, বোন, স্ত্রীকে ধর্ষণ করেছে সেখানে কেন জেনেশোনে যাবে। তবে রোহিঙ্গারা যদি মনে করে মিয়ানমার ফেরত গিয়ে জীবনযাপন করতে কোনো রকমের অসুবিধা হবে না তাহলে তারা যাবে। কিন্তু ফেরত যাওয়ার পর যদি তাদের নিয়ন্ত্রণ করে রাখা হয়, কাজকর্ম করতে না দেওয়া হয় তাহলে ফেরত যেতে তারা উৎসাহিত হবে না। তাদের বাচ্চা-কাচ্চারা যদি খেলাধুলা, স্কুলে যেতে না পারে, স্বাস্থ্যসেবাসহ মৌলিক সুযোগ-সুবিধা যদি না পায় তাহলে ফেরত যাবে তারা? মনে হয় না।
পরিচিতি : সাবেক রাষ্ট্রদূত ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত