প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নেতানিয়াহুর স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়েছে : ইসরায়েলের বিচার মন্ত্রণালয়

ইমরুল শাহেদ : ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর স্ত্রী সারাকে প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙ্গের জন্য বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত করা হয়েছে। তার গৃহস্থালি ব্যয় নিয়ে যেসব অভিযোগ উঠেছিল তা নিয়ে ব্যাপকভাবে পুলিশি তদন্তের পর সত্য বলেই প্রমাণিত হয়েছে। এ কথা বলা হয়েছে ইসরায়েলের বিচার মন্ত্রণালয় থেকে। মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ‘জেরুজালেমের জেলা কৌশলী খুব কম সময়ের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।’
অভিযোগে বলা হয়েছে, গত বছর তিনি এবং তার সহযোগী ঘোষণা দিয়েছিলেন যে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে কোনো রান্নাবান্না হয়নি। জনগণের অর্থে বাইরে থেকে খাবার আনা হয়েছে। বিচার মন্ত্রণালয় বলেছে, এর মূল্য প্রায় ৯৭ হাজার ডলার অর্থাৎ ইসরায়েলি মুদ্রায় তিন লাখ ৫০ হাজার ডলার।
প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নিজেও দুর্নীতির অপরাধে তদন্তাধীন আছেন।
একটি মামলায় দেখানো হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী এবং তার পরিবারের সদস্যরা সম্পদশালী লোকদের কাছ থেকে প্রায় দশ লাখ শেকেল মূল্যের বিলাসিতাপূর্ণ সিগার, শ্যাম্পেন এবং স্বর্ণালংকার ঘুষ হিসেবে গ্রহণ করেছেন। লক্ষ্য হলো তাদেরকে ব্যক্তিগত ও অর্থনৈতিকভাবে লাভ করিয়ে দেওয়া।
আরেকটি মামলায় সন্দেহ করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নিজের প্রচার পাওয়ার জন্য ইসরায়েলের বহুল প্রচারিত ইয়েদিয়ত আহারনট দৈনিকের সঙ্গে কোনো গোপন চুক্তি করেছেন। সব অভিযোগের প্রেক্ষিতেই নেতানিয়াহু নিজেকে নির্দোষ হিসেবেই তুলে ধরেছেন এবং বলেছেন তিনি ‘উইচ-হান্ট’-এর শিকার। তিনি ক্ষমতায় টিকে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন।
নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে টেলিকম ফার্ম বেজেককে সরকারিভাবে সহায়তা করা হচ্ছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এক্ষেত্রেও নেতানিয়াহুর উদ্দেশ্য অভিন্ন। তাদের একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তিনি এবং তার পরিবারের সদস্যদের পক্ষে প্রচারণা চান।
এতো কিছু সত্ত্বেও ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের নির্বাচন যদি এখনই অনুষ্ঠিত হয় তাহলে নেতানিয়াহুর দল লিকুদ পার্টি পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে। এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত