প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

নিজেদের উৎপাদন সীমায় স্থির থাকা উচিৎ ওপেকের : ইরান

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ইরান মনে করে ওপেক এবং অন্যান্য তেল উৎপাদকদের একটি নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত তেল উৎপাদন করা উচিৎ। ইরানের তেলমন্ত্রী বিজান জানগানেহ সিএনএন মানির সম্পাদক জন ডেফটরিজকে একটি সাক্ষাৎকারে এই কথা বলেছেন। তিনি মনে করেন উৎপাদন সীমা বেঁধে দেয়া পূর্বতন একটি চুক্তিই বৈশ্বিক তেল উৎপাদন, সরবারহ, চাহিদা এবং দামে সামঞ্জস্য আনার সেরা উপায়।

জানগারেহ এর উল্লেখিত চুক্তিটি ২০১৭ সালে সম্পাদিত হয়। এই চুক্তিতে ওপেক এবং অন্য তেল উৎপাদকদের একটি নির্দিষ্ট উৎপাদন সীমা বেঁধে দেয়া হয়। জানগারেহ মনে করেন সমস্যার সমাধান অবশ্যই সম্ভব। তবে তা চুক্তি অনুযায়ী হতে হবে। আন্তর্জাতিক এনার্জি এজেন্সির মতে চুক্তি থেকেও মে মাসে ৪ লাখ ৬০ হাজার ব্যারেল তেল প্রতিদিন বেশী উৎপাদিত হয়েছে। শুক্রবার অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় অনুষ্ঠিতব্য তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোর উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের আগে এই কথা বললেন ইরানের তেলমন্ত্রী। এই বৈঠকে জ্বালানী তেলের উৎপাদন কমিয়ে আনার ব্যাপারে আলোচনা হবার কথা রয়েছে। ২০১৮ সাল পর্যন্ত নির্দিষ্ট একটি পরিমানে তেল উৎপাদনের কথা ছিলো। তবে সাম্প্রতিককালে রাশিয়া এবং সৌদি আরব জানিয়েছে প্রয়োজনে তারা তেলের উৎপাদন বাড়াবে।

সাম্প্রতিক সময়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোআল্ড ট্রাম্প ওপেকভুক্ত দেশ ইরানের সাথে সম্পাদিত পরমানু চুক্তি থেকে সরে আসার ঘোষণা দেন। একই সাথে ইরানের ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৬ সালে ওবামা প্রশাসনের সময়ে অবরোধ তুলে নেবার পর নিজেদের তেলের উৎপাদন বৃদ্ধি করে প্রতিদিন ১ মিলিয়ন ব্যারেলে নিয়ে যায় ইরান। তবে নতুন করে অবরোধের মুখে পড়ায় অতিরিক্ত তেলের বাজার সঙ্কটে পড়েছে দেশটি। – সিএনএন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত