প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘মেসির লাইফস্টাইল পড়ে আমি আর্জেন্টিনার ফ্যান হয়েছি’

নিজস্ব প্রতিবেদক : একদিকে ঈদের আমেজ অন্যদিকে বিশ্বকাপ ফুটবলের উন্মাদনা। বাড়ির ছাদে উড়ছে কিংবা বারান্দায় দুলছে সমর্থিত দলের পতাকা। পাড়ায় মহল্লায় বন্ধু আড্ডায় কিংবা চায়ের দোকানে চলছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা নিয়ে বাকবিতণ্ডা। পরিবারের ভেতরেও উঠছে চায়ের কাপে ঝড়। বাবা মেসি তো সন্তান নেইমার কিংবা বড় সন্তান আর্জেন্টিনার সমর্থক আর ছোটটি ব্রাজিলের। জার্সির দোকানগুলোতেও কাটতি বেশ। হুমড়ি খেয়ে পড়ছে ক্রেতারা।

আজ ১৪ জুন বৃহস্পতিবার রাশিয়ার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে বিশ্বকাপ আসর। এ উপলক্ষ্যে রাশিয়া বিশ্বকাপের থিম সং ‘লিভ ইট আপ’ প্রকাশ করেছে ফিফা। জমকালো নাচ ও গানের তালে তালে উদ্বোধনী পর্দাও উঠেছে। প্রথম ম্যাচে হেরেছে সৌদি আরব।

বরাবরের মতো বাংলাদেশে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা দলের বাইরেও রয়েছে সমর্থিত দল, সেই ক্ষেত্রে জার্মানির সমর্থকের সংখ্যা অন্যান্য দলের তুলনায় বেশি।

মাঠের চৌহদ্দি পেরিয়ে সমর্থনের এই উন্মাদনা সারা বিশ্বের সাধারণ মানুষ ছাড়াও ছড়িয়ে পড়েছে তারকাদের মধ্যে। আবেশ পড়েছে বাংলাদেশেও। দেশের চেনা তারকারা তাদের গায়ে জড়িয়েছেন নিজ নিজ সমর্থিত দলের জার্সি। ব্যাখ্যাও দিচ্ছেন দল সমর্থনের।

আর্জেন্টিনার সমর্থক নির্মাতা এবারের লাক্স সুন্দরি মিম মানতাসা। তিনি জানিয়েছেন তার আর্জেন্টিনা প্রীতির পেছনের কারণ। এ ছাড়াও আলাপে উঠে এসেছে মেসির কথাও।

আপনি কেন আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে সমর্থন করেন?

মিম: বাসায় যখন খেলাধুলা দেখতাম, আব্বু আর ভাইয়া ছিল ব্রাজিলের সমর্থক। কিন্তু আমার কাছে মেসিকে খুবই ভালো লেগেছিল। আর সবচেয়ে আমি বেশি ফ্যান হয়েছি যখন মেসির লাইফ স্টাইল আমি পড়েছি। ওর জীবনী। ও এত ট্যালেন্টেড মানুষ, যেটা গড গিফটেড, মনে হয় এর থেকে বেস্ট কেউ হতেই পারে না। যে কারণে আমি আর্জেন্টিনার সমর্থক।

মেসির লাইফস্টাইলের কোন দিকটা আপনাকে বেশি আকর্ষণ করেছে?

মিম: মেসি গড গিফটেড। মেসি নরমাল একজন মানুষই না। কারণ মেসি একটু আলাদা। সে শারীরিকভাবে একটু আলাদা। তার দুর্বলতা কোনো দুর্বলতাই না। সে তার দুর্বলতাকে একটি শক্তি বানিয়ে ফেলেছে।

কিন্তু একটা সময় তো আর্জেন্টিনা দলে মেসি খেলবে না, তখন কি আর্জেন্টিনা সমর্থন করবেন?

মিম: হ্যাঁ, আর্জেন্টিনাকে আমি মন থেকেই সমর্থন করি। আমি চাই আর্জেন্টিনা জয় লাভ করুক। চার বছর পরপর হলেও আমি নিয়মিত আর্জেন্টিনার খেলা দেখি।

আপনি ঠিক কখন থেকে ফুটবল প্রেমী?

মিম: আমি ক্লাস ফোর-ফাইভ থেকেই ফুটবল খেলা দেখি। ফুটবল খেলা অনেক শর্ট টাইমে হয়, আর ক্রিকেট তো অনেক লং টাইমের, সেটা বসে বসে দেখার ধৈর্য আমার ছিল না। তাই ফুটবলের প্রেমে পড়েছি।

বাংলাদেশ ফুটবল টিমের খেলা দেখেন?

মিম: না, খুব একটা দেখা হয় না। কিন্তু আমি চার বছর পরপর বিশ্বকাপ ফুটবল বিশ্বকাপ খেলাটা দেখি।

 

জেনে নিন কবে কবে খেলবে আর্জেন্টিনা

এবার প্রথম রাউন্ডে আর্জেন্টিনা খেলছে গ্রুপ ‘ডি’-তে। এ গ্রুপে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ আইসল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া, নাইজেরিয়া। আর্জেন্টিনা বনাম আইসল্যান্ডের খেলা হবে ১৬ জুন। এটি টিভি পর্দায় দেখা যাবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায়। বআর্জেন্টিনা বনাম ক্রোয়েশিয়ার খেলা ২১ জুন। এটি টিভি পর্দায় দেখা যাবে রাত ১০টায়। আর আর্জেন্টিনা বনাম নাইজেরিয়ার খেলা ২৬ জুন। টিভিতে প্রচার হবে সে দিন রাত ১০টায়। বাংলাদেশের নাগরিক টিভি, মাছরাঙা ও জিটিভিতে খেলা দেখা যাবে।
আর্জেন্টিনার রেকর্ড

আর্জেন্টিনা মোট চারবার ফিফা বিশ্বকাপে ফাইনাল খেলেছে। ১৯৭৮ সালে তারা নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৩–১ ব্যবধানে জয় লাভ করে বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে। ১৯৮৬ সালে ম্যারাডোনার নেতৃত্বে পশ্চিম জার্মানিকে ৩–২ ব্যবধানে হারিয়ে তারা তাদের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে। দলটি কোপা আমেরিকায় দারুণ সফল। তারা মোট চৌদ্দবার এই শিরোপা জিতেছে। ১৯৯২ সালে তারা ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ শিরোপাও জয় করেছে তারা। এ ছাড়া ২০০৪ এথেন্স এবং ২০০৮ বেইজিং অলিম্পিকে স্বর্ণপদকও জেতে আর্জেন্টিনা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত