প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এখনকার ওয়াজে সাম্প্রদায়ীকতা শেখানো হচ্ছে

শাহরিয়ার কবির : বাংলাদেশে সারা বছর বিভিন্ন নামে বিভিন্ন মেলা হয়, সেটি সামাজিক অনুষ্ঠান উপলক্ষে হোক বা পহেলা বৈশাখ অথবা বিভিন্ন মাজারকে কেন্দ্র করেই হয়ে থাকুক না কেন, এমন অনেক মেলা হয়। এই যে সামজিক বা ধর্মীয় কারণে যে মেলাগুলো হচ্ছে, এগুলোর শতকরা ৯০ ভাগ মেলা বন্ধ হয়ে গেছে। কিন্তু এখনো ওয়াজ হয়, তাতে যা হয়, উগ্রবাদ, মৌলবাদ, সাম্প্রদায়ীকতা এগুলো ছড়ানো হয়। বিশেষ করে জামায়াতে ইসলামীর, সাঈদি সাহেবের অনুসারিরা এমন ওয়াজ করে থাকেন। তাদের লক্ষ হচ্ছে, যুব সমাজকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থেকে দূরে রাখা।

আমরা বলেছিলাম, বিজয় দিবস উপলক্ষে সরকারী ভাবে সারা দেশে বিজয় মেলা করতে, একেবারে ইউনিয়ন পর্যন্ত। তা এখনো কার্যকর হয় নাই। মার্চ হচ্ছে স্বাধীনতার মাস, ১লা মার্চ থেকে শুরু করে পুরো মাস জুড়ে সারা দেশে স্বাধীনতার মেলা হবে। আর এই বিষয় গুলো করতে বাজেট লাগে। আমাদের মেলাগুলো করার উদ্দেশ্য আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং চেতনা সম্পর্কে তরুণদেরকে জানানো।

পরিচিতি : সভাপতি, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি/ মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/ সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত