প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রস্তাবিত বাজেটে শেয়ারবাজারে প্রভাব পড়েনি

মাসুদ মিয়া: নতুন অর্থবছরের (২০১৮-১৯) প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক খাতের কর্পোরেট কর হার আড়াই শতাংশ কমানো পরও শেয়ারবাজারে লেনদেনে কোনো প্রভাব পড়েনি। বরং বাজেট প্রস্তাবের পরের কার্যাদিবস রোববার দেশের শেয়ারবাজারে বড় দরপতন হয়েছে। আর এ বড় দরপতনের মূলে রয়েছে ব্যাংক ও আর্থিক খাত। কারণ এ দুই খাতের সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমেছে। ফলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচক কমেছে।

মূল্য সূচকের পাশাপাশি এদিন লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় কমেছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১০৭ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ১৮৯টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৯টির দাম। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমলেও দরপতনের ধারা সব থেকে বেশি ছিল ব্যাংক ও আর্থিক খাতে। ব্যাংক খাতের মাত্র দুটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ২২টির। আর আর্থিক খাতের ১৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমেছে এবং বেড়েছে সাতটির।

অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমার কারণে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৪৩ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩২৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ২৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৯৫৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২২৯ পয়েন্টে।

বাজারে লেনদেন হয়েছে ৪০৭ কোটি ৭২ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৪৫৪ কোটি ৪১ লাখ টাকা। সে হিসাবে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৪৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ৮৩ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৯২৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারে লেনদেন হয়েছে ৩৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২২১ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৫টির দাম বেড়েছে। কমেছে ১৩৭টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির দাম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত