প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘উন্নত দেশগুলো কি সর্বক্ষেত্রে মানবাধিকার সংরক্ষণ করে?’

নাজমুল ইসলাম : চলমান মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে জাতিসংঘ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক বিশ্বের উদ্বেগ থাকবে কেন। এটা বাংলাদেশের সমস্যা। বাংলাদেশ নিরসন করার চেষ্টা করছে। এখানে যদি কোনো ধরনের আইনবহির্ভূত ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে সরকার এটা দেখবে। অনুসন্ধান করবে নিশ্চয়ই। কিন্তু আন্তর্জাতিক বিশ্বের এখানে চাপ দেওয়ার কিছু আছে বলে মনে হয় না। এমন মন্তব্য করেছেন সাবেক রাষ্ট্রদূত ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক মোহাম্মদ জমির।

আমাদের অর্থনীতির সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, উন্নত দেশগুলো কি সর্বক্ষেত্রে মানবাধিকার সংরক্ষণ করে। জাতিসংঘ কি তার দায়িত্ব পালন করে? তাহলে তাদের এ বিষয়ে উদ্বেগ থাকবে কেন? জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে আমাদের পুলিশকে নেবে কি নেবে না, সম্পৃক্ত করবে কি করবে না সেটা জাতিসংঘের ব্যাপার। কদিন আগে জাতিসংঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের ফিলিস্তিনিদের উপরে একটা রেজ্যুলেশন উপস্থাপন করা হয়েছিল যে, ফিলিস্তিনিদের দেখাশোনা করা উচিত, তাদের নিরাপত্তা দেওয়া উচিত। কিন্তু সেখানে তো একটি উন্নত দেশ ভেটো দিয়ে বসে আছে। সর্বক্ষেত্রে মানবাধিকার যেন এক মাপ কাঠিতে দেখা হয়।

তিনি আরও বলেন, মানবাধিকার সংক্রান্ত যে সকল আইন রয়েছে আন্তর্জাতিক ও দেশীয় ক্ষেত্রে সংবিধান যা আছে তা সবাইকে মেনে চলা উচিত। কারও প্রতি যদি কোনো কারণে সন্দেহ থাকে যে সে কোনো প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত এবং সেটা অবৈধ এ ব্যাপারে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত। শুধু জিজ্ঞাসাবদই নয়, আইনগতভাবে শাস্তি দেওয়া উচিত। মানবাধিকার রক্ষা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

তবে এখানে সরকারের তরফ থেকে এ অভিযানের বিষয়ে বারবারই বলা হয়েছে যে, যাদের বিরুদ্ধে এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে, সর্বসম্মতি ক্রমেই একটা লিস্ট করা হয়েছে যে তারা মাদক ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। এখন দেখা যাচ্ছে এদের মধ্যে এক-দুজন বেরিয়ে এসেছে কদিন আগে, মারা যাওয়া একজনের পরিবার বলছে যে, মাদক কারবার বা মাদকের সঙ্গে জড়িত ছিল না সে। সেই জন্য সরকারের যেটা করা উচিত, এ বিষয়টি অনুসন্ধানে সার্বিকভাবে দেখা উচিত। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তা করার চেষ্টা তারা করছে। আমাদের এখন অপেক্ষা করতে হবে, দেখি কী হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ