প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ছেলেকে ম্যানইউতে দেখতে চান রোনালদোর মা

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্বকাপের সময় যতো এগিয়ে আসছে, ততোই নিত্যনতুন খবরের শিরোনাম হচ্ছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তিনি রিয়াল ছাড়ার ইঙ্গিত দেয়ার পর আপাতত খবর, তাকে পেতে দলবদলের বাজারে মরিয়া হয়ে নামছে পিএসজি। কিন্তু তাকে পুরনো ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেই দেখতে চান তার মা।

যেখান থেকে রোনালদো তারকা হয়ে উঠেছিলেন সেই ম্যানইউতে ছেলেকে দেখলে খুশি হবেন দেলোরেস অ্যাভেইরা। ইতালির কয়েকটি পত্রিকার দাবি, রোনালদোকে পেতে ৫২০ কোটি ডলার দিতে প্রস্তুত পিএসজি। বার্সেলোনায় এই পরিমাণ টাকাই পাচ্ছেন লিওনেল মেসি।
এর মধ্যেই একটি ফরাসি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাতকারে রোনালদোর মা দেলোরেস অ্যাভেইরা বলেন, ‘আমি প্যারিসকে ভালোবাসি। এখানে আসতে সবমময়ই ভালো লাগে। সবশেষবার রোনালদো যখন ব্যালন ডি’অর জেতে, তখন এখানে এসে দারুণ অভ্যর্থনা পেয়েছিলাম।’

যদি পিএসজিতে সই করেন রোনালদো? এমন প্রশ্নের জবাবে অ্যাভেইরার জবাব, ‘সে পিএসজিতে সই করলে আমার খারাপ লাগবে না। তবে যদি জিজ্ঞেস করেন তার কোথায় সই করা উচিত? তাহলে বলব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।’

রোনালদো পিএসজিতে সই করলে দুই রকম সমস্যা। এক. রোনালদোকে নিলে নেইমারকে ছাড়তে হবে। ব্রাজিল তারকাকে আবার প্রবলভাবে চাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। দুই. রোনালদোকে রিয়াল থেকে বের করে আনতে যে পরিমাণ ট্রান্সফার ফি দিতে হবে, সেটা পিএসজি দিতে পারবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে। যদিও অর্থের চেয়ে উয়েফার বিধি-নিষেধের মারপ্যাঁচই বেশি।

শোনা যাচ্ছে রিয়াল কর্মকর্তারা রোনালদো এবং গ্যারেথ বেলকে বিক্রি করে নেইমারকে দলে নিতে চাচ্ছেন। এর অবশ্য উল্টো দিকও আছে। বিশেষ করে রোনালদোকে নিয়ে। পর্তুগিজ তারকাকে ছেড়ে দিলে মার্কেটিং ও স্পন্সরশিপ নিয়ে চাপে পড়বে রিয়াল। সেই ক্ষতি রিয়াল পুষিয়ে উঠতে পারবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে ইউরোপের বড় বড় কয়েকটি ক্লাব।

কিয়েভে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতার পর রোনালদো বলেন, ‘রিয়ালে খেলার অভিজ্ঞতা দারুণ ছিল।’ রোনালদোর এই ’ছিল’ নিয়েই প্রশ্ন উঠে যায়। এরপর আর কোনো জবাব দেননি সিআর সেভেন।

এরমধ্য আবার রিয়ালের নতুন মৌসুমের জার্সি উন্মোচন নিয়ে যে ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে আশ্চার্যজনকভাবে নেই রোনালদো। তারপর থেকেই রিয়ালে তার ভবিষ্যত নিয়ে নানা জন নানা কথা বলছেন। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের আগে রোনালদোর দলবদল নিয়ে আগ্রহ ক্রমশ বাড়ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত