প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাবাং’এ কৌশলগত বন্দর নির্মাণ করবে ভারত ও ইন্দোনেশিয়া

রাশিদ রিয়াজ : ভারত মহাসাগরে ইন্দোনেশিয়া ও ভারত যৌথ উদ্যোগে প্রতিরক্ষার দিক থেকে একটি কৌশলগত বন্দর নির্মাণ করবে। দুটি দেশ সামুদ্রিক সহযোগিতা বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইন্দোনেশিয়া সফরের সময় দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদোর সঙ্গে বৈঠকের পর এসব সিদ্ধান্ত জানানো হয়। রয়টার্স

কৌশলগত বন্দর নির্মাণ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার সাবাং’এ একটি অর্থনৈতিক বিশেষায়িত এলাকা গড়ে তোলা হবে। এজন্যে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে সুমাত্রা দ্বীপ ও মালাক্কা প্রণালীর মুখে। বিশ্ব নৌবাণিজ্যের ক্ষেত্রে এ স্থানটি অত্যন্ত ব্যস্ততম এলাকা। কৌশলগত বন্দরটি বাণিজ্য ছাড়াও নিরাপত্তার দিক থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত করবে। সাবাং বন্দরটির কাছে পানির গভীরতা ৪০ মিটার হলেও অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে সেখানে বাণিজ্যিক জাহাজ ছাড়াও সাবমেরিনের অবস্থান নিশ্চিত করা হবে। এ উন্নয়নে সময় লাগবে দুই বছর এবং এরপর সাবাং ট্রান্সশিপমেন্ট বন্দরে পরিণত হবে। এ ব্যাপারে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা প্রীতি স্মরণ বলেন, সাবাং শুধু নৌ বন্দর নয় বিমান বন্দর রয়েছে সেখানে। ভারতীয় কোম্পানিগুলোর অনেক স্বার্থ রয়েছে এখানে।

মোদির সঙ্গে বৈঠকের পর ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো বলেন, ভারত আমাদের কৌশলগত প্রতিরক্ষা অংশীদার। সাবাং ও আন্দামান দ্বীপে তাই দেশটির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে অবকাঠামো নির্মাণের কথা জানান তিনি। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, ওই অঞ্চলে চীনের প্রভাব বৃদ্ধি ছাড়াও মোদির ‘এ্যাক্ট ইস্ট’ নীতি অনুসরণ করেই ভারত আসিয়ান দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতা বৃদ্ধি করছে। এছাড়া দক্ষিণ চীন সাগর এলাকাটি নিয়ে ব্রুনেই, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, তাইওয়ান ও ভিয়েতনামের মধ্যে দ্বন্দ্ব বিরাজ করছে ও বছরে ওই এলাকা দিয়ে ৩ ট্রিলিয়ন ডলারের পণ্য আনানেয়া হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত