প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আ’লীগ সম্পূর্ণ জনবিচ্ছিন্ন পুলিশি দলে পরিণত হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণ জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পুলিশি দলে পরিণত হয়েছে। তাই তাদের অবৈধ ক্ষমতাকে ধরে রাখার জন্য গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে ফেলছে। গণতন্ত্রের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। কারণ আওয়ামী লীগ ও সরকার বেগম জিয়াকে সবচেয়ে বেশী ভয় পায়। বাংলাদেশের জনগণ এখন আওয়ামী লীগের সাথে নেই।

বুধবার শহীদ জিয়ার ৩৭তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের কাজীর দেউড়িস্থ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে মহানগর বিএনপির ইফতার এ মাহফিলে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্যে রাখেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তিনি নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানান এবং আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে আহবান জানান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আজ কথা বলার অধিকার নেই। সরকার দুর্নীতির মাধ্যমে জনগণের টাকা লুটপাট করেছে। প্রশ্ন ফাঁস ও নকলের মাধ্যমে শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়েছে। নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। দেশের মানুষ তাদের আস্থার প্রতীক বিএনপির দিকে তাকিয়ে আছে। দলীয় নেতাকর্মীদেরকে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে আরো সুদৃঢ় করে ইস্পাতের মত কঠিন রূপ দিতে হবে। তৃণমূলের নেতাকর্মীদেরকে সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। আমাদের ঐক্যই পারে বেগম জিয়াকে মুক্ত করে আনতে। বিএনপির সবচেয়ে বড় শক্তি জনগণের সমর্থন এবং ঐক্য নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জি।
২০ দলীয় জোটের শরীক দল কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ইব্রাহিম বলেন, কোনো স্বৈরাচারী সরকারের পতন আন্দোলন ছাড়া হয়নি। আন্দোলন শুরু করলে, গণঅভভ্যুত্থান হয়ে যাবে। জনগণই রাস্তায় নেনমে এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাবে। চট্টগ্রাম থেকেই এই আন্দোলন শুরু হবে বলেন ২০ দলের এই নেতা।

তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম আজকে যেটা চিন্তা করে সারা বাংলাদেশ তা একদিন পরে জানে। রাজনৈতিক বিবেচনায় বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের যেভাবে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে তাতে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে বিচারব্যবস্থার ওপর আস্থা কমে যাচ্ছে। শুধু তাই নয় নিরাপত্তা ও বিচারহীনতার কারণে সমাজে অস্থিরতার সৃষ্টি হচ্ছে।
সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, বেগম জিয়া সারা জীবন গণতন্ত্র, ভোটাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। কোনো ষড়যন্ত্রের সাথে তিনি আপোষ করেননি। বর্তমান ক্ষমতাশীনরা বিগত ১১ বছর যাবত শহীদ জিয়ার হাতে গড়া দল বিএনপিকে ভাঙ্গার নানামূখী ষড়যন্ত্রে চেষ্টা করেছে। তাতে সফল না হয়ে মিথ্যা বানোয়াট মামলায় সাজা দিয়ে বেগম জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়ে বিএনপিকে দুর্বল ও নেতৃত্ব শূন্য করে আর একটি প্রহসনের নির্বাচন করতে চায়। তাদের সেই স্বপ্ন কখনোই পূরণ হবে না।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় অসার পর থেকে সারাদেশে ৭৮ হাজার মামলায় ১৮ লাখেরও বেশি নেতাকর্মীকে আসামি করেছেন। বহু নেতা গুম, খুন ও পঙ্গুত্বের শিকার হয়েছেন। এত নির্যাতনের পরও একজন নেতাকর্মী বিএনপি ছেড়ে যায়নি। হাজারো নির্যাতন সহ্য করে এখনো বুক ফুলিয়ে স্লোগান ধরে’’ আমার নেত্রী আমার মা, বন্দি রাখতে দিব না’’।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এ এম নাজিম উদ্দিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ, জালাল উদ্দিন মজুমদার, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, নগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সপিয়ানসহ আরো অনেকে। সূত্র : পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত