প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রমজানে অবশ্যই কোরআন তেলাওয়াত করা উচিৎ: মুফতি আহসান শরিফ

আমিন মুনশি: কোরআন তেলাওয়াত করা, কোরআনের অর্থ জানা এবং এর ওপর আমল করা সব মুমিনের ওপর ফরজ দায়িত্ব। পবিত্র রমজানুল মোবারকে কোরআনুল কারিম নাজিল হয়েছে। তাই রমজানে অবশ্যই কোরআন তেলাওয়াত করা উচিৎ। প্রিয়নবি মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ওপর ২৩ বছরে ধাপে ধাপে কুরআন অবতীর্ণ হলেও লওহে মাহফুজ থেকে প্রথম আসমানে রমজানের কদরের রাতে একবারে অবতীর্ণ হয়েছে। দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের সাথে আলাপকালে রমজানে করণীয় সম্পর্কে এসব কথা বলেন মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকার প্রিন্সিপাল মুফতি আহসান শরিফ।

মুফতি আহসান শরিফ বলেন, পবিত্র মাহে রমজান হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ মাস। শুধু তাই নয়, আমলের দিক থেকে, সওয়াবের দিক থেকে, নেকি অর্জনের দিক থেকে এমনকি ইবাদতের দিক থেকেও এই মাস শ্রেষ্ঠ। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, ‘রমজান মাস, যাতে অবতীর্ণ হয়েছে কোরআন- মানুষের পথপ্রদর্শক, সৎপথের সুস্পষ্ট নিদর্শন এবং সত্য-মিথ্যার পার্থক্য নির্ণয়কারী হিসেবে।’ (সুরা বাকারা : ১৮৫)

তিনি আরো বলেন, যুগে যুগে মানুষের হেদায়েতের জন্য, সৎপথ প্রদর্শনের জন্য আল্লাহ তায়ালা এক লাখ চব্বিশ হাজার পয়গম্বর প্রেরণ করেছেন। মানুষকে আল্লাহর দিকে আহ্বানের জন্য, শান্তি, শৃঙ্খলা, নিরাপত্তা ও জান্নাতের পথ সুগম করা এবং জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেয়ার জন্য পয়গম্বরদের দিয়েছেন মোট ১০৪টি কিতাব। এর মধ্যে তাওরাত, জাবুর, ইঞ্জিল ও কোরআন- এ চারটি প্রসিদ্ধ। বাকি একশটি কিতাবের নাম সহিফা। এর দশটি আদম আলাইহিস সালামের ওপর, পঞ্চাশটি শিশ আলাইহিস সালামের ওপর, ত্রিশটি ইদ্রিস আলাইহিস সালামের ওপর এবং দশটি ইবরাহিম আলাইহিস সালামের ওপর নাজিল হয়। (মিরকাত: ০১, পৃষ্ঠা : ৫৭)
কোরআনুল কারিমের মর্যাদা অন্য সব ধর্মগ্রন্থ থেকে বেশি। কোরআনুল কারিম কিয়ামত পর্যন্ত স্থায়ী থাকবে। কোরআনুল কারিম অপরিবর্তনশীল। কেবলমাত্র কোরআন মাজিদেরই হেফাজতের দায়িত্ব নিয়েছেন আল্লাহ পাক। এজন্যই তো চৌদ্দশ বছর পরও পবিত্র কোরআন অবিকৃত। কেয়ামত পর্যন্ত এভাবেই থাকবে ইনশাআল্লাহ।

তিনি বলেন, সারা বছর ব্যস্ততার কারণে অনেকেই কোরআন তেলাওয়াত করতে পারেন না। তবে রমজানে অবশ্যই কোরআন তেলাওয়াত করা উচিৎ। তেলাওয়াত না জানলে তারাবির নামাজে হাফেজদের পেছনে দাঁড়িয়ে একাগ্রচিত্তে তেলাওয়াত শোনা এবং দ্রুত কোরআন তেলাওয়াত শিখে নেয়ার চেষ্টা করা উচিৎ। একজন সচেতন মুসলিম হিসেবে কোরআন তেলাওয়াত করতে না জানা, কুরআনের অর্থ বুঝার আগ্রহ না রাখা নিঃসন্দেহে দুঃখজনক বিষয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত