প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসলামের দৃষ্টিতে মাদক সেবন শয়তানের কাজ 

মঞ্জুর হোসাইন : সচেতনতামূলক কার্যক্রম অর্থাৎ শ্রেণিকক্ষে শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি মাদকের ভয়াবহতার বিস্তার, অপব্যবহার এবং এর ক্ষতির দিকগুলো তুলে ধরতে হবে এবং শিক্ষার্থীদেরকে এ বিষয়ে সচেতন করতে হবে। শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বইয়ের মধ্যে মাদকের সচেতনতামূলক অধ্যায় যুক্ত করলে এই বিষয়টি আরো সহজ হবে। মাদকের দুই’টি দিক আছে তার মধ্যে একটি হলো মাদক সেবি, অন্যজন কার্বারি। কার্বারিদের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আছে এবং সেবিদের জন্য রয়েছে সরকার প্রতিষ্ঠিত মাদক নিরাময় ও পূণর্বাসন কেন্দ্র বা বিভিন্ন সংস্থা আছে।

আর এই সংস্থাগুলো কর্ম তৎপরতা বাড়ালে, মাদক সেবিদের মূল্য সম্পর্কে বুঝালে এবং তাদের ভলো চিকিৎসা দিলে একটি সফলতা আসতে পারে। ইসলাম মাদকের ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি সোচ্চার ও কঠোর। ইসলাম মাদকের বিরুদ্ধে। কেননা ইসলামে বলা হয়েছে, মাদক শয়তানের কাজ, নিকৃষ্ট কাজ এবং মাদক সেবন হারাম। কোরআনে মাদক বিরুদ্ধে অনেক আয়াত রয়েছে। রাসূল (সা:) মাদকের জন্য তার উম্মতকে সতর্ক করেছেন। মাদক সেবন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করলে কেয়ামতের ময়দানে তারা মূর্তী পুঁজারির মত উঠবে। ইসলামী অনুশাসনের আমাদের সমাজে নাই বলেই আজ আমরা ইসলামের মর্ম বুঝতে পরছি না।

পরিচিতি : উপাধাক্ষ, রায়পুর কামিল মাদ্রাসা / মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/ সম্পাদনা : মেহেদী হাসান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত