প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চুয়াডাঙ্গায় চাষ হচ্ছে হলুদ তরমুজ

সাজিয়া আক্তার : সবুজ বা গারো সবুজ নয়, গায়ের রং হলুদ, মুখে দিলেই মিলবে তরমুজের স্বাদ। ভিন্ন জাতের এমন তরমুজ আবাদ করছেন চুয়াডাঙ্গার চাষীরা। প্রথমবারের মতো বাণিজ্যিক ভাবে চাষ করে লাভের মুখ দেখার আশাও করছে তারা।

রং হলুদ হলেও তরমুজ, গোল্ডেন ব্রাউন নামের ভিন্ন জাতের এই তরমুজ চাষ করেছেন চুয়াডাঙ্গার কৃষকরা। অসময়ে চাষ হলেও খেতে সুস্বাদু এবং বাজারে চাহিদাও আছে অনেক।

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, এই তরমুজ দেখতে খুব সুন্দর, বাজারে এই তরমুজ খুব তাড়াতাড়ি বিক্রি হয়। হলুদ তরমুজ বাজারে অনেক চাহিদা।

কৃষকরা জানালেন বীজ বপনের ২ মাসের মধ্যে ফল বিক্রির উপযোগি হয়। প্রতি বিঘা জমিতে উৎপাদনের খরচ ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা। প্রতিমণ তরমুজ বিক্রিহয় ২ হাজার ৮০০ থেকে সারে ৩ হাজার টাকায়।

তরমুজ কৃষকরা বলেন, এই জাতের তরমুজ যখন প্রথম আবাদ করি তখন খুব ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। এখন চাষ করতে করতে অভ্যস্থ হয়ে গেছি এবং এর ধরণ সম্পর্কে জানতে পেরেছি। এখন অনেক কৃষকরাই হলুদ তরমুজ চাষে আগ্রহী।

বীজ সরবরাহ প্রতিষ্ঠান বলছে, প্রথম বাণিজ্যিক চাষ হলেও আশার চেয়ে বেশি ফলন হয়েছে।

এগ্রি কনসার্ন লিমিটেড এরিয়া ম্যানেজার খাইরুল ইসলাম বলেন, এবছর আমরা হলুদ তরমুজের বীজ বাণিজিক ভাবে চাষের জন্য দিয়েছে। আমরা যেমন ফলন আশা করেছিলাম তার থেকেও বেশি ফলন পেয়েছি। আশা করছি এই তরমুজ ব্যাপকভাবে বিস্তৃত লাভ করবে।

কৃষিবিভাগ বলছে গোল্ডেন ব্রাউন তরমুজ চাষের ব্যাপারে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে। হলুদ তরমুজের বীজ আমদানি করা হয়েছে তাইওয়ান থেকে।

সূত্র: ডিবিসি টেলিভিশন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত