প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্বপ্নবিনাশী মাদক

প্রফেসর ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি: মাদকের বিরুদ্ধে সারাদেশে অভিযান চলছে। অভিযান পরিচালনা করছে নিরাপত্তা বাহিনী। মাদক কারবারীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। কেউ কেউ মারাও যাচ্ছে। এ অভিযান নিয়ে বিতর্ক-সমালোচনা হলেও মানুষের ব্যাপক সমর্থন মিলেছে। সমর্থন দিচ্ছে সরকারের এ পদক্ষেপকে। কেন আজকে এ অভিযান পরিচালনা করতে হচ্ছে? অনিবার্য হয়ে পড়েছিল বলেই। দরকার ছিল এর আগেই এ ধরনের অভিযান পরিচালনার। তবে দেরিতে হলেও কাজটি শুরু হয়েছে। এবং মাদক নির্মূলে যুদ্ধ ঘোষণা করে এগিয়ে চলছে এ অভিযান। অকুণ্ঠ সমর্থন রয়েছে জনগণের। কেন মাদক আজকে সমাজের জন্য বড় এক সংকট হয়ে দাঁড়াল। সমস্যার মূলে কী? বহু কারণ আছে। তবে বড় কারণগুলো হচ্ছে আমাদের সুশিক্ষা। দারিদ্রতা। সংস্কৃতির প্রতি প্রীতি কম। আমরা শিক্ষিত হচ্ছি, কিন্তু প্রকৃত শিক্ষা লাভ করছি না। দারিদ্র্যতা আমাদের জন্য বড় সংকট। অনেক দরিদ্র পরিবারের সন্তান হয়তো মাদকাসক্ত হয়ে যাচ্ছে প্রপার গাইডের অভাবে। অথবা পড়ালেখায় তাকে মনোনিবেশ করানো যায়নি বাবা-মা অসচেতন বলে। আর সংস্কৃতির প্রতি প্রীতিও আমাদের কমে গেছে। আগে বিভিন্ন সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান হতো, সেসবে আমাদের অংশগ্রহণ ছিল। আমাদের সন্তানেরা অংশ গ্রহণ করত। যার ফলে মাদকের মতো জিনিসের দিকে তাদের কোনো আগ্রহ ছিল না, এখন সেই জায়গাটায় কাজ হচ্ছে কম। যার ফল তো আমরা হাতেনাতেই পাচ্ছি।

আমরা আসলে স্বাপ্নিক, স্বপ্ন দেখতে পছন্দ করি। বিশেষ করে আমাদের তরুণেরা স্বাপ্নিক। আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন দেখে তারা। অথচ আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্নে বিভোর আমাদের তারুণ্যকে আজকে মাদকে কেড়ে নিচ্ছে। স্বপ্নবিনাশী মরার মাদক! এই স্বপ্নবিনাশী মাদকের সঙ্গে কোনো আপোস নেই। এই স্বপ্নের পথে যত চ্যালেঞ্জ বা বাধা আসবে তা অপসারণও করতে হবে আমাদের। স্বপ্ন দেখা মানুষটিকে স্বপ্ন ফিরিয়ে দিতে হবে। জানেনই তো স্বপ্নের সমান বড় মানুষ। আমরা স্বপ্ন দেখলে বাংলাদেশও স্বপ্নের গন্তব্যে পৌঁছে যাবে। আমরা এখন সেই সুদিনের অপেক্ষায়।
লেখক : সদস্য, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত