প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নোয়াখালীতে দুটি নতুন জাতের অমেরুদণ্ডী প্রাণী আবিষ্কার!

তানভীর রিজভী : নোয়াখালীর উপকূলীয় অঞ্চলে দুটি নতুন জাতের অমেরুদণ্ডী প্রানী আবিষ্কার করলেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও মেরিন বায়োলজিস্ট মোহাম্মদ বেলাল হোসেইন।

‘নিউমোনিয়া নবিপর্বিয়া’ ও ‘এরেনামস স্মিতি’ নামক দুটি প্রানী জলে বাস করে। এরা অমেরুদণ্ডী প্রানী। নোয়াখালীর উপকূলীয় এলাকার পানিতে বেলাল এই নতুন দুটি প্রজাতি আবিষ্কার করেছেন।

‘নিউমোনিয়া নবিপর্বিয়া’ এর নামকরন করা হয়েছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রজুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নামানুসারে। আর দ্বিতীয়টি ‘এরেনামস স্মিতি’ এর নামকরন করা হয়েছে বিখ্যাত ডাচ এক্রোলজিস্ট হ্যারি স্মিথের নামানুসারে।

গবেষণা দলে বেলাল হোসেইন সহ চার দেশের পাঁচজন গবেষক ছিলেন। যাদের মধ্যে আছেন মন্টিনিগ্রোর এক্রোলজিস্ট ড. ভ্লাদিমির, ভারতের ক্রিসেন্ট ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রফেসর তাপস চ্যাটার্জি, পোল্যান্ডের একজন গবেষক এবং বেলাল হোসেইনের ছাত্র মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

মোহাম্মদ বেলাল হোসেইন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব ফিশারিজ এন্ড মেরিন সাইন্সের প্রফেসর। তিনি একমাত্র বাংলাদেশী যার আবিষ্কার দেশের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিকভাবে সাড়া ফেলেছে।

আবিষ্কার হওয়া প্রাণী দুটি নিয়ে বেলাল হোসেইন জানান, প্রানী দুটি আকারে খুব ছোট। এরা আর্থোপোডা গোত্রের অন্তর্ভুক্ত। এদের মেরুদন্ড নেই। দৈর্ঘে ২-৩ মিলিমিটারের বেশী হয় না। দেহের বর্ণ হলুদ। এদের দেহে একজোড়া এন্টেনা ও চার জোড়া পা আছে। বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ জলাশয় যেমন খাল-বিল, পুকুর, নদীতে ভাসমান উদ্ভিদের সাথে এরা থাকে। ভাসমান উদ্ভিদই এদের খাবার। বাংলাদেশের বাস্তুতন্ত্রে এ দুটি প্রাণী খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

সূত্র: ঢাকা ট্রিবিউন

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ