প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসরায়েলের কাছে রেকর্ড পরিমাণ ব্রিটিশ অস্ত্র বিক্রয়

নূর মাজিদ: ইহুদিবাদি রাষ্ট্র ইসরাইলের আগ্রাসী আচরণে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি যখন সুস্পষ্ট হয়ে উঠছে ঠিক তখনই দেশটিতে যুক্তরাজ্য রেকর্ড পরিমাণ অস্ত্র রপ্তানি করছে। আর এই রপ্তানি প্রক্রিয়া দেশটিতে ব্রিটেনের অস্ত্র রপ্তানি করার ঐতিহাসিক ধারাবাহিকতারই অংশ।

‘ক্যাম্পেইন এগেইন আর্মস ট্রেড’ নামক একটি যুদ্ধবিরোধী সংস্থা জানায়, শুধুমাত্র ২০১৭ সালেই যুক্তরাজ্যের অস্ত্র রপ্তানিকারকদের ২২১ মিলিয়ন পাউন্ড সমরাস্ত্র ইসরাইলে রপ্তানির অনুমোদন দেয় দেশটির সরকার। এর ফলে ইসরাইল ব্রিটিশ অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে অষ্টম বৃহৎ দেশে পরিণত হয়েছে। এর আগের বছর ২০১৬ সালে এই রপ্তানির পরিমাণ ছিলো মাত্র ৮৬ মিলিয়ন পাউন্ড। যা ২০১৫ সালে ছিলো মাত্র ২০ মিলিয়ন পাউÐ।

ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান জানায়, বিগত পাঁচ বছরে ব্রিটেন ইসরায়েলের কাছে মোট ৩৫০ মিলিয়ন পাউন্ডের অস্ত্র প্রকাশ্যে বিক্রয় করে। তবে অপ্রকাশ্য চুক্তির মাধ্যমে রপ্তানির পরিমাণ বহুগুণ বেশী হবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। পত্রিকাটি জানায়, ইসরায়েলের কাছে প্রকাশ্যে বিক্রিত অস্ত্রের মধ্যে স্নাইপার রাইফেল, আগ্নেয়াস্ত্রের অ্যামুনিশন, মিসাইল, আধুনিক রাইফেল সাইট, গ্রেনেডসহ বেশ কিছু প্রাণঘাতী সরঞ্জাম রয়েছে। এই সমস্ত অস্ত্র ও সরঞ্জাম ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের উপর বর্বর আগ্রাসনে ব্যবহার করে থাকে।

ব্রিটিশ মানবাধিকার কর্মীরা ব্রিটিশ অস্ত্র রপ্তানির মাধ্যমে ইসরায়েলকে আরো সুসজ্জিত করে তোলার পাশাপাশি সে দেশে ব্রিটিশ রাজপুত্র উইলিয়ামের সা¤প্রতিক সফরের নৈতিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। ইতোমধ্যেই গাজা সীমান্তে ইসরাইলের হামলায় ব্রিটিশ অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে ব্রিটিশ সরকার পার্লামেন্টের ভেতরে ও বাহিরে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছে। এর আগে ব্রিটিশ সরকারি এক তদন্তে প্রমাণ পাওয়া যায়, ২০১৪ সালের গাজা যুদ্ধে ইসরায়েল অন্তত ১৪ ধরণের ব্রিটিশ অস্ত্র ব্যবহার করে। -দ্য গার্ডিয়ান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত