প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অন্যের মামলায় প্রক্সি, ৪৫ দিন পর কারাগার থেকে মুক্ত

তৌহিদুর রহমান নিটল,ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অন্যের মামলায় প্রক্সি দিয়ে জেল খাটা আসামী সেলিম মিয়া ২ মাস ১৫ দিন অর্থাৎ ৪৫ দিন পর আদালতের নিদের্শে কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

শুক্রবার বিকেলে কারাগারের ডেপুটি জেলার হুমায়ুন কবীর আদালতের নির্দেশ মোতাবেক সেলিম মিয়াকে কারাগার থেকে অব্যাহতি দেন।

জানা যায়, মাদক মামলার আসামী আখাউড়া উপজেলার ছোট কুড়িপাইকা গ্রামের ইউপি সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবদুল হান্নান একই এলাকার সেলিম মিয়াকে রিক্সা কিনে দেয়ার লোভ দেখিয়ে তার পরিবর্তে আদালতে হাজিরা দিতে বলেন। পরে সেলিম মিয়া নিজেকে আবদুল হান্নান পরিচয় দিয়ে প্রক্সির মাধ্যমে আদালতে হাজিরা দেন। পরে বিজ্ঞ আদালত তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলার জামিন না মঞ্জুর করে তাকে কারাগরে প্রেরণ করে। পরে বিষয়টি কারা কর্তৃপক্ষ টের পেয়ে বিজ্ঞ আদালতকে অবহিত করেন। আদালত হান্নানের পরিচয়ে মাদক মামলা থেকে সেলিমকে অব্যাহিত দিলেও তার বিরুদ্ধে প্রক্সি দেয়ার ঘটনায় চিটিং মামলা করা হয়। বর্তমানে সে চিটিং মামলায় জামিনে রয়েছে।

এদিকে দীর্ঘদিন পর কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ায় স্বস্তিতে রয়েছে তার পরিবার।

সেলিম মিয়া জানান, অন্যের মামলায় প্রক্সি দিতে গিয়ে তাকে অনেক কষ্টের সম্মুখীন হতে হয়েছে। তার মত আর কেউ যাতে এমন ঘটনার শিকার না হয়। তিনি স্থানীয় ইউপি সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবদুল হান্নানের বিচার দাবি করেন।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবড়িয়া জেলা কারাগারের ডেপুটি জেলার হুমায়ুন কবীর বলেন, বিজ্ঞ আদালতের আদেশে সেলিম মিয়াকে কারাগার থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত