প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘শেয়ারবাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরানো বড় চ্যালেঞ্জ’

ফয়সাল মেহেদী : শেয়ারবাজার ধসের পরে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ফিরে আসা এখনও দৃশ্যমান হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ এফসিএ। তিনি বলেন, শেয়ারবাজারের প্রতি সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরিয়ে আনাই এখন বেশ বড় চ্যালেঞ্জ।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির বাজেট প্রস্তাবনা ২০১৮-১৯’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. জামালউদ্দিন আহমেদ বলেন, শেয়ারবাজারের সমস্যা শুধু সরবরাহ ঘাটতিই নয়, আছে চাহিদা সল্পতাও। আরও আছে শেয়ারবাজার ও অর্থবাজারের মধ্যে কার্যকর সমন্বয়ের অভাব। তিনি আরও বলেন, সরকারি ও কর্পোরেট বন্ড মার্কেট সৃষ্টির কথা ভাবা জরুরি। এর ফলে একদিকে স্টক বাজারের উপর নির্ভরশীলতা কমবে অন্যদিকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা তাদের পোর্টফোলিও বৈচিত্রকরণে সক্ষম হবে।

এই সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেয়ারবাজারের ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষার জন্য মিউচ্যুয়াল ফান্ডের কথা ভাবতে হবে। বিষয়গুলো এবারের বাজেটে উল্লেখ করা প্রয়োজন।

আর্থিক ব্যবস্থা সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের আর্থিক ব্যবস্থা মূলত ব্যাংকনির্ভর। দেশের সিকিউরিটিজ মার্কেটের সীমিত ভূমিকাও বর্তমান অবস্থায় তেমন কোনো অবদান রাখতে সক্ষম নয়। তাই অর্থনীতিতে ব্যক্তি খাতের যৌক্তিক অর্থায়ন যাতে অব্যাহত থাকে সে জন্য সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংককে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে হবে।

ড. জামালউদ্দিন বলেন, ব্যবসার অনুকূল পরিবেশের অভাবে  এবং ব্যাংক ঋণের তুলনামূলক উচ্চ সুদ হারের কারণে ঋণ গ্রহীতাদের মধ্যে ঋণ গ্রহণের উৎসাহ কম। এ অবস্থার উত্তরণে বাংলাদেশ ব্যাংক ও সরকারের সম্মিলিত উদ্যোগে নীতি-কৌশল উদঘাটন করতে হবে। ব্যাংকিং শৃঙ্খলা নিশ্চিত করাসহ মুদ্রানীতি ও ঋণনীতি হতে হবে বিনিয়োগ বান্ধব। একই সঙ্গে বিনিয়োগের পরিবেশ উন্নতির জন্য সরকারকে উপযুক্ত রাজস্ব নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে।

ব্যাংকিং ব্যবসায় সরকারি, বেসরকারি একং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কোর ব্যাংকিং সফ্টওয়ার বাস্তবায়ন জরুরি উল্লেখ করে তিনি বলেন, লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক কোডের গোপনীয়তা নিশ্চিত করাসহ কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকারি লেনদেনে আটোমেশন চালু করা এবং জাতীয় পেমেন্ট সিস্টেম অটোমেশন জরুরি।

বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি ও অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের সভাপতিত্বে আসন্ন অর্থবছরের জন্য সংগঠনটির বিকল্প বাজেট পেশ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি এ জেড এম সালেহ্, অধ্যাপক হান্নানা বেগম, মো. আবদুল হান্নান প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত