প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাক্ষাৎকারে সাইফুল হক
মাদক ব্যবসা নির্মূলের নামে বন্দুক যুদ্ধে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও বাম জোটের শীর্ষ নেতা সাইফুল হক বলেছেন, আইন শৃঙ্খলাবাহিনী মাদক ব্যবসা নির্মূলের নামে বন্দুক যুদ্ধে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে-তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। মাদকের উৎসহ ও তার সরবরাহ লাইনসহ সমগ্র ব্যবস্থাটি অক্ষুন্ন রেখে বিচ্ছিন্নভাবে মাদক বাহনকারী বা এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কিছু ব্যক্তিবর্গকে বন্দুক যুদ্ধের নামে হত্যা করলে এ সমস্যার সমাধান হবে না। শনিবার একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

সাইফুল হক বলেন, মাদকের প্রায় সমগ্র সেন্ডিকেটকে ধরাছোাঁয়ার বাইরে রেখে মাদক ব্যবসা নির্মূলের এ অভিযান যে সফল হবে না তা অত্যন্ত স্পষ্ট। সরকারের প্রধান শরিক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ যখন বলেন- জাতীয় সংসদের ভেতরেই মাদক সম্রাট রয়েছে এবং এটা দেশের কে না জানে-তাদের বিরুদ্ধে কোনো কার্যকরী ব্যবস্থা ব্যতিরেখে এ অভিযানে তেমন কোনো সফলও আসবে না।

তিনি বলেন, দেশবাসী জানেন যে, মাদক ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত অধিকাংশ গডফাদারাই সরকার ও সরকারি দলের ছত্রছায়ায় এ ব্যবসা অব্যাহ রেখেছে। দেশবাসী মনে করে-সরকারের ছত্রছায়ায় থাকা সকল মাদক স¤্রাট ও বড় বড় সেন্ডিকেটসমূহকে নির্মূল ও উচ্ছেদ করা না গেলে অর্থাৎ সরকারের ঘর যদি পরিষ্কার করা না যায়-তা হলে এ ব্যবসাকেও নির্মূল করা যাবে না। মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, মাদক সম্রাট বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে কিন্তু প্রমাণ নেই।

তিনি আরও বলেন, আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলতে চাই- বিগত দু’সপ্তাহে প্রায় যে ৭০জন মানুষকে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে আখ্যায়িত করে হত্যা করা হলো তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ কি প্রমাণ করা গেছে। কারা কিভাবে এ অভিযোগ প্রমাণ করলো তাও জানার অধিকার মানুষের আছে। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, প্রচলিত আইনী প্রক্রিয়ায় বিচার ব্যবস্থাকে উপেক্ষা করে রাষ্ট্র বা তার আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তার কোনো নাগরিককে এ ভাবে মেরে ফেলতে পারে না। কোনো সূক্ষ¥ গণতান্ত্রিক সরকার বিচার বর্হিভূত হত্যাকা-ের অনুমোদন দিতে পারে না। যত বড় অপরাধীই হোক দেশের প্রচলিত আইনে তার সর্বোচ্চ শাস্তিরও বিধান রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত