প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৩০ মে বাসের টিকেট বিক্রী শুরু
জ্যাম ও ভাঙ্গাচোড়া সড়ক, মালিক পক্ষের ক্ষোভ

জ্যাম ও ভাঙ্গাচোড়া সড়ক, মালিক পক্ষের ক্ষোভ

রুহুল আমিন : আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে যাত্রীদের যাতায়াত সহজ করতে প্রতি বছরের নেয় এবারও বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স এসোসিয়েশন ৩০ মে থেকে আগ্রিম সড়ক পথে টিকেট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশের উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সকল বাসের টিকেট স্ব-স্ব কাউন্টার ও অনলেইনে পাওয়া যাবে।

এদিকে রাজধানীর পান্থপথে ঢাকা-চট্রগ্রামসহ দেশের অন্যান্য সড়কে যাত্রীবহন করছে গ্রীন লাইন পরিবহণ, ইউনিক পরিবহণ কাউন্টারের স্টাফরা জানিয়েছেন, ঈদ উপলক্ষে টিকেট নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে কোন রকম বাড়তি আমেজ এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি। আমাদের সার্ভিস অন্য সময়ের মতোই স্বাভাবিক থাকবে। যাত্রীরা যখনই আসবে তখন টিকেট ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়াও অনলাইনে তো সারাক্ষণই টিকেট সংগ্রহের ব্যবস্থা থাকছে। যারা কালেক্ট করতে চায় তারা নিতে পারেন অনলাইন থেকে।

সরেজমিন গাবতলি বাস-ট্রার্মিনালে গিয়ে দেখো গেছে, পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে তেমন ব্যস্ততা নেই। যাত্রীর সংখ্যাও তুলনামূলক কম। দক্ষিণাঞ্চল ও উত্তরঞ্চলের শ্যামলী, ডিপজল, তুহিন এলিট, আসাদ, হানিফ শ্রমিকরা জানিয়েছেন মালিক সমিতি ঠিক করলে ঈদের আগাম টিকেট বিক্রি হবে । টিকেটের দাম বাড়ার কোন সম্ভবনা নেই।

বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স এসোসিয়েশনে সদস্য মোহাম্মদ সালাউদ্দিন (৫৫) জানান, চলতি মাসের ৩০ তারিখ থেকে গাবতলি বাস ট্রামির্নাল কাউন্টার ও অনলাইনে একযোগে সকল বাসের টিকেট ঈদ উপলক্ষে ছাড়া হবে।

ভাঙ্গা-চোড়া রাস্তায় জ্যামের কারণে সড়ক পথে বাসের যাত্রীর সংখ্যা কমেছে। ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক পরিবহণ মালিক ও পবিরবহণ নেতারা সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ৮ জুনের মধ্যে রাস্তা চলাচলের উপযোগী হতে পারলে এখন কেন তা করা হচ্ছে না।

তারা ওবায়দুল কাদেরকে উল্টো প্রশ্ন রেখে বলেন, ৮ জুনের মধ্যে রাস্তা হতে পারলে এখন হচ্ছে না কেন? এখন পরিবহণে যাত্রী না থাকায় পরিবহণ সংশ্লিষ্ট মালিক ও শ্রমিকরা অর্থ সংকটে জীবনযাপন করছেন।

এই সময় কয়েকজন পরিবহণ মালিক বলেছেন, এ ঈদে সড়কে তাদের বাসের সংখ্যা কমিয়ে দিবেন কারণ হিসেবে তারা সড়কে বাসের যাত্রী সংকট ও রাস্তায় ভাঙ্গা- চোড়া ও জ্যামের ফলে গাড়ীর ফিটনেস ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং প্রতি বাসের রোড খচর বাড়ছে। অন্যদিকে আয় কমেছে।

আসন্ন রমজান ঈদে অন্যান্য বছরের মতো এবারও সরকার ও বিআরটিএ কতৃক নির্ধারিত ভাড়াই থাকবে। এরবাইরে কেউ বেশি ভাড়া আদায় করলে তার বিরুদ্ধে মালিক সমিতি শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত